অনেকের কাছেই সিকিম মানে গ্যাংটক কিংবা পেলিং। কিন্তু অনেকেই আছেন যাঁরা পুরো সিকিম ঘুরে দেখতে চান। কিংবা মূল চার জায়গা, লাচুং-লাচেন, পেলিং, জুলুক ঘুরে ফেলেছেন, তাঁদের ক্ষেত্রে সিকিমকে পছন্দের তালিকাতে রাখতে বেজায় বেগ পেতে হয়। অফবিট রুটের খোঁজেই তখন তাঁরা হাঁতরে ফেরেন সিকিমের ম্যাপ। এবার তেমনই এক অফবিট রুটের খোঁজ রইল, জায়গাটির নাম মোজাউল।

সিকিমের হৃষিখোলার নাম অনেকেই শুনেছেন। গিয়েছেনও অনেকেই। তারই পাশের একটি ছোট গ্রাম হল মোজাউল। সেখানেই এবার পাড়ি জমাতে পারেন স্বপরিবারে কিংবা পরিজনদের সঙ্গে। নদীর পাশে পাইন জঙ্গলে মোরা এই পাহাড়ি গ্রামে কয়েকটা দিন কাটিয়েই আসা যায়। অনবদ্য প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের মধ্যে পাথরের ওপর বসেই কাটিয়ে দেওয়া য়ায় দীর্ঘক্ষণ। ছোট ছোট কাঠের কটেজ, যাঁর পাশ দিয়েই বয়ে চলেছে নদী। এখান থেকে খানকটা এগোলেই পাওয়া যাবে হৃষিখোলা। 

কীভাবে যাবেনঃ নিউজলপাইগুড়ি স্টেশন থেকেই পাওয়া যাবে মোজাউলের গাড়ি। পুরো গাড়ি ভাড়া লাগবে ৩৫০০ টাকার মত। সময় লাগে মাত্র ৪ ঘন্টা। বছরের সব সময়ই এই জায়গার সৌন্দর্য অনবদ্য। 

খরচঃ এখানে ১০০০ টাকায় পাওয়া যাবে কটেজ। সব মিলিয়ে মাথাপিছু খরচ পড়বে ৬৫০০ টাকার কাছাকাছি। হাতে সময় থাকলে হৃষিখোলাও ঘুরে আসা যায়।