সঞ্জীব কুমার দুবে, পূর্ব মেদিনীপুর-দিনে দিনে বাড়ছে মদ্যপদের দৌরাত্ম্য। রাস্তা ঘাটে এই সমস্যা দিনে দিনে বাড়তে থাকায় তীব্র জনরোষের মুখে পড়ল লাইসেন্সপ্রাপ্ত মদের দোকান। এলাকায় মদের দোকান থাকায় মেয়েদের নিরাপত্তা নিয়ে প্রশ্ন উঠছিল। সোমবার তীব্র প্রতিবাদ জানায় স্থানীয় বাসিন্দারা। ঘটনাটি ঘটেছে পূর্ব মেদিনীপুরের মারিশদা থানা এলাকায়। গ্রামবাসীদের মদ দোকানের বিরোধিতা করলে তাঁদের উপর চড়াও হয় দুষ্কৃতীরা। এরপরই, গ্রামবাসীরা ক্ষিপ্ত হয়ে মদের দোকানে ভাঙচুর ও দুষ্কৃতীদের তাড়া করে। ঘটনার জেরে এলাকা উত্তপ্ত হয়ে ওঠে গোটা এলাকা।  

আরও পড়ুন-'শিল্পপতিদের ঋণ মকুব হলে, মহিলাদের কেন নয়', ঋণমুক্তির দাবিতে জেলাশাসকের দফতরে

বিশেষ করে মদ্যপদের তাণ্ডবে ওই এলাকায় মহিলাদের নিরাপত্তা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করে। প্রতিবাদে মদ বিরোধী নাগরিক কমিটি গঠব করেন গ্রামবাসীরা। লাইসেন্স মদ দোকানের বিরোধিতায় গণ স্বাক্ষর করেন গ্রামবাসীরা। সোমবার মারিশদা থানার ওসি ও বিডিওর কাছে ডেপুটেশন দিতে যাওয়ার কর্মসূচি নেন তাঁরা। সেই সময় কয়েকজন দুষ্কৃতী তাঁদের উপরহামলা চালায় বলে অভিযোগ। 

 আরও পড়ুন-বাজি কারখানায় আচমকা বিস্ফোরণ, উড়ল বাড়ির ছাদ

এরপরই ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠেন গ্রামবাসীরা। সাত থেকে আটটি গ্রামের বাসিন্দারা একজোট হয়ে ওই মদের দোকানে ভাঙচুর চালায়। প্রতিবাদে সবচেয়ে আগে সামিল হন মহিলারা।  দুষ্কৃতীরা বিপদ বুঝে পালানোর চেষ্টা করলে তাঁদেরকে তাড়া করেন গ্রামবাসীরা। দফায় দফায় বিক্ষোভের জেরে উত্তেজনা ছড়ায় মারিশদা থানার দেবেন্দ্র ও ভাজাচাউলি এলাকা। ঘটনাস্থলে পুলিশ পৌঁছে পরিস্থিতি আনে। এলাকায় মদের দোকান বন্ধের আশ্বাস দেয় পুলিশ ও রাজনৈতিক নেতারা।