মাত্র কয়েক ঘণ্টার মধ্য়েই উদ্ধার করা গেল চুরি যাওয়া শিশুকে। রবিবার কড়া নিরাপত্তার মধ্যে থেকেই মেদিনীপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মাতৃমা বিল্ডিংয়ে শিশু চুরির ঘটনাকে ঘিরে উত্তেজনা ছড়ায়। সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখে সন্ধ্যার মধ্যেই উদ্ধার করা গিয়েছে শিশুকে।

মাঝ আকাশে সন্তান প্রসব বিদেশিনির, কলকাতায় বিমানের জরুরি অবতরণ

পশ্চিম মেদিনীপুরের গড়বেতা এলাকার বাসিন্দা অভি খামরুই তার স্ত্রী সুমিত্রা খামরুই কে প্রসব যন্ত্রণা অবস্থায় ভর্তি করেছিলেন মেদিনীপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। শনিবার সকালে তাকে ভর্তি করার পর সন্ধ্যায় শিশুপুত্রের জন্ম দেন তিনি। প্রথম সন্তান ও মা দুজনেই সুস্থ ছিল। রবিবার মা ও শিশু দুজনে যখন ঘুমিয়ে ছিল তখন তাদের রেখে বাইরে খেতে বেরিয়েছিলেন শাশুড়ি মাধবী খামরুই। সেই মুহূর্তে ঘুমন্ত মায়ের কাছ থেকে ঘুমন্ত শিশু তুলে নিয়ে ফেরার হয়ে গিয়েছিলেন এক মহিলা। মুহূর্তে শিশুকে পাশে নেই দেখে চেঁচামেচি কান্নাকাটি শুরু করে দিয়েছিলেন সুমিত্রা দেবী।

ভিডিও দেখে সটান হাজির স্টিভ, মুচিপাড়ার ক্ষুদে বিস্ময়-কে বানাবেন বড় ক্রিকেটার

কড়া নিরাপত্তার বেষ্টনীতে থাকা হাসপাতালে মাতৃমা বিল্ডিং থেকে এভাবে শিশু চুরির ঘটনায় তুমুল বিক্ষোভ শুরু হয় পরিবারের। তাতে সঙ্গ দেয় অন্যান্য রোগীর পরিবারের লোকজনও। দুপুর ১২ টা থেকে তিনটে পর্যন্ত বিক্ষোভ সমালোচনার পুলিশকে। ঘটনার তদন্তে নামে পুলিশ ও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

নিখোঁজ হার্ট স্পেশালিস্ট ফিরলেন 'স্বামীজি'র বেশে, যার কাহিনি জানলে অবাক হতে হয়

সিসিটিভি ফুটেজে ধরা পড়ে এক মহিলা শিশুটিকে কোলে নিয়ে দ্রুত বেরিয়ে যাচ্ছেন। সেই ফুটে যে মহিলাকে শনাক্ত করে কোতোয়ালি থানার পুলিশ খোঁজ শুরু করে দেয়। সন্ধ্যে ছটা নাগাদ মেদিনীপুর শহর সংলগ্ন একটি এলাকা থেকে শিশুটিকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। তবে ওই মহিলাকে গ্রেফতার বা আটক করা হয়েছে কিনা তা নিয়ে মুখে কুলুপ এঁটেছে পুলিশ। কোতোয়ালি থানার পুলিশ জানিয়েছে শিশুটিকে অক্ষত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে। তবে এর বেশি এখনই কিছু বলা যাবে না।