বাঁকুড়া থেকে কার্যত একুশের নির্বাচনী প্রচার শুরু করে দিয়েছেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্য়ায়। সেখানে বিজেপি-সিপিএম-কংগ্রেস রাজ্যের সব বিরোধীদের একযোগে আক্রমণ করেন মমতা। সেখানে তৃণমূল কংগ্রেসকে 'ত্যাগী' ও বিজেপিকে 'ভোগী' বলে কটাক্ষ করেছিলেন। এবার তারই পালটা মমতার সরকারকে আমফান দুর্নীতি নিয়ে তীব্র কটাক্ষ করেন লকেট চট্টোপাধ্য়ায়।

আরও পড়ুন-'সিপিএম লোভী-বিজেপি ভোগী', বিরোধীদের কটাক্ষ করে বাঁকুড়া থেকেই প্রচার শুরু মমতার

বুধবার পূর্ব মেদিনীপুরের মেচেদার রেল ময়দানে সভা করে বিজেপি। সেখানে উপস্থিত ছিলেন কৈলাস বিজয়বর্গীয় সহ, লকেট চট্টোপাধ্য়ায়, শঙ্কুদেব পণ্ডা। সেখান থেকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্য়ায়কে তীব্র আক্রমণ করেন লকেট। সভা থেকে তিনি বলেন, ''ঘূর্ণীঝড় আমপানের ত্রাণ চুরি করা, কেন্দ্রীয় সরকারের পাঠানো চাল-ডাল চুরি করা তৃণমূল নাকি আবার ত্যাগী। করোনার থাবায় বাংলার শ্রমিকদের ঘরে ফেরায় স্পষ্ট হয়েছে পশ্চিমবঙ্গে কর্মসংস্থানের পরিস্থিতি। বাংলায় কাজ নেই বলে সাধারণ মানুষকে ঘর-পরিবার ছেড়ে কাজের জন্য যেতে হচ্ছে ভিন রাজ্যে। বাংলায় শুধু তিনটে শিল্প। চপ-ঢপ আর বোমা''।

আরও পড়ুন-'দলের ১০০% কর্মী ভালো নয়-তৃণমূলের সব আমার নজরে থাকে', বাঁকুড়ায় বিস্ফোরক মমতা

অন্যদিকে, বাংলার নারী সুরক্ষা নিয়েও রাজ্য সরকারের তীব্র সমালোচনা করেন লকেট। রাজ্যের একের পক এক ঘটে চলা খুন ও ধর্ষণের ঘটনায় সরকারের বিরুদ্ধে একহাত নেন লকেট। মুর্শিদাবাদে আল কায়দা জঙ্গি যোগের প্রসঙ্গ তুলে তিনি বলেন, ''বাংলায় সন্ত্রাস দমনেও ব্যর্থ রাজ্য সরকার'। তিনি আরও বলেন,''একুশের বিধানসভা ভোটের পর তৃণমূলে পিসি আর ভাইপো ছাড়া কেই থাকবে না। একুশে সোনার বাংলা গড়বে বিজেপি''। প্রতিশ্রুতি বিজেপি সাংসদ লকেট চট্টোপাধ্য়ায়ের।