শাজাহান আলি, মেদিনীপুর: হাতির পাল যদি ফসল নষ্ট করে দেয়! বিদ্যুৎ তার দিয়ে জমি ঘিরে রেখেছিলেন এক চাষি। বিদ্যুৎপৃষ্ট হয়ে বেঘোরে প্রাণ গেল একটি গরুর। পোষ্যকে বাঁচাতে গিয়ে তড়িতাহত হলেন গরুর মালিকও। বিদ্যুৎ দপ্তর অভিযোগ দায়ের করেছেন ক্ষুদ্ধ গ্রামবাসীরা। ঘটনাটি ঘটেছে পশ্চিম মেদিনীপুরের শালবনির নোনাসোল এলাকায়।

আরও পড়ুন: স্নান করতে নেমে জলাশয়ে তলিয়ে যাওয়ার একদিন পর দেহ উদ্ধার, মেদিনীপুরে চাঞ্চল্য

মেদিনীপুরের জঙ্গলের হাতির অভাব নেই। তার উপর আবার অন্য এলাকা বিশেষ করে দলমা থেকে এসে হাতির দল ঢুকে পড়ে জঙ্গলে। খাবারে সন্ধানে যখন-তখন লোকালয়ে ঢুকে পড়ে হাতির দল। হাতির তাণ্ডবে নষ্ট হয় জমির ফসল। এমনকী, প্রাণহানি ঘটনাও ঘটে। আবার কেউ কেউ বরাতজোরে বেঁচেও যান।

আরও পড়ুন: নিট-এ আর বসা হল না, তিনদিন পর গঙ্গায় ভেসে উঠল নিখোঁজ পরীক্ষার্থীর দেহ

শালবনি নোনাসোল গ্রামের বাসিন্দাদের অভিযোগ, হাতির হানা থেকে ফসল বাঁচানোর জন্য অবৈধভাবে বিদ্যুতের সংযোগ করে জমি তার দিয়ে ঘিরে রেখেছেন বিকাশ মাহাত নামে এক ব্য়ক্তি। বিষয়টি ঘুণাক্ষরেও টের পাননি কেউই। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় যখন চাষের কাজ সেরে গরু নিয়ে বাড়ি ফিরছিলেন মণীন্দ্রনাথ মাহাতো নামে এক ব্যক্তি, তখনই ঘটে দুর্ঘটনা। স্থানীয় বাসিন্দারা জানিয়েছেন, জমির পাশ দিয়ে যাওয়ার সময়ে গরুটি কোনওভাবে বিদ্যুৎবাহী তারে মুখ দিয়ে ফেলে। পোষ্যকে ছটফট করতে দেখে টেনে সরানোর চেষ্টা করেন মণীন্দ্র। তখন বিদ্যুৎপৃষ্ট হয়ে তিনিও দূরে ছিটকে পড়েন। শেষপর্যন্ত গরুটিকে আর বাঁচানো যায়নি। এদিকে এই ঘটনার পর ক্ষোভে ফেটে পড়েন গ্রামবাসীরা। রাতেই অভিযোগ জানানো হয় শালবনি থানায় ও বিদ্যুৎ দপ্তরে। অভিযুক্ত জমির মালিক পলাতক। তদন্তে নেমেছে পুলিশ