শাজাহান আলি, পশ্চিম মেদিনীপুর-মাছ ধরার জালে হস্তিশাবকের মৃতদেহ ঘিরে চাঞ্চল্য ছড়াল পশ্চিম মেদিনীপুরে। শনিবার সাত সকালে গোয়ালতোড়ের তমাল নদীতে হস্তিশাবকের মৃতদেহ দেখতে পান স্থানীয় বাসিন্দারা। নদীতে মাছের বদলে হস্তিশাবকদেহ দেহ   উদ্োদার ঘিরে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকায়। 

বনদফতর সূত্রে খবর, বেশ কয়েকদিন ধরে গোয়ালতোড় জঙ্গল লাগোয়া ধরমপুর, কদমডিহা সহ বেশ কয়েকটি গ্রানমে প্রায় ৩০টি হাতির একটি দল রয়েছে। জঙ্গল লাগোয়া গ্রাম গুলিতে তাণ্ডব চালানোর পাশাপাসু  জমির ফসলেরও ক্ষতি করছে। ওই হাতির পালটি শুক্রবার রাতে দুটি দলে ভাগ হয়ে যায়। সেখানে একটি দলে হস্তিশাবক ছিলয। এদিন রাতে খাবারের খোঁজে বেরিয়ে এলাকার তিয়াসা নদী পেরোচ্ছিল হাতির দলটি। সেসময় হস্তিশাবকটি জলের তোড়ে ভেসে যায় বলে অনুমান বন দফতরের।

আরও পড়ুন-অর্থের বিনিময়ে পাশমার্ক, প্রকাশ্যে এল অধ্য়াপকের নাম, শিলিগুড়ি ভাইরাল অডিও বিতর্ক

গ্রামবাসীরা জানান, তিয়াসা নদীর মাঝে মাছ ধরার জালে আটকে আছে কালো রঙের কোনও একচি জিনিস। কসাঁতার কেটে কাছে গিয়ে জানতে পারেন সেটি মৃত হস্তিশাবক। এরপর সেটিকে উদ্ধার করে নদীর পাড়ে নিয়ে আসেন গ্রামবাসীরা। গত কয়েক দিনের টানা বৃষ্টি এবং কংসাবতী ক্যানালে টানা জল ছাড়ার কারনে ফুলে ফেঁপে রয়েছে তিয়াসা নদী। রয়েছে খরস্রোত। সেসময় হস্তিশাবকটি হাতির পালের সঙ্গে নদী পেরোতে গেলে জলের তোড়ে ভেসে যায়। খবর দেওয়া হয়েছে বন দফতর ও গোয়ালতোড় থানায়।

অন্যদিকে, মেদিনীপুর সদরের পলাশিয়া গ্রামে ঢুকে তাণ্ডব চালাল একটি দাঁতাল হাতি। ঘটনার জেরে আতঙ্ক ছড়ায় এলাকায়। জমির ফসল নষ্টের আশঙ্কা করেন চাষিরা। পরে গ্রামবাসীরা নিজেরাই উদ্যোগ নিয়ে জঙ্গলের দিকে তাড়িয়ে দেয়।