ফের পথ দুর্ঘটনার শিকার হলেন দিঘাগামী যাত্রী। দিঘা যাওয়ার  পথে ভয়াবহ দুর্ঘটনায় প্রাণ হারালেন  চার জন এবং গুরুতরভাবে জখম দুই জন। ঘটনাটি ঘটেছে তমলুক থানার রামতারকে ৪১ নম্বর জাতীয় সড়কে। আহতদের ইতিমধ্য়েই আশঙ্কাজনক অবস্থায় পিজি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

আরও পড়ুন, অতি ঘন কুয়াশার সতর্কবার্তা রাজ্যজুড়ে, ভারি বৃষ্টি হবে দুই বঙ্গে

 বৃহস্পতিবার  ভোর তিনটার সময় তমলুকে পথ দুর্ঘটনাটি ঘটে । দুর্ঘটনায় প্রাণ হারাতে হল খানাকুলের কিশোরপুর-১ অঞ্চলের চারজন বাসিন্দার। তৃণমূলের কার্যকরী অঞ্চল সভাপতি দীপঙ্কর বর , প্রসেনজিৎ দিগের, রাজকুমার পন্ডিত, দিলীপ সামন্তের ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় ।  গুরুতর জখম অবস্থায় পিজিতে ভর্তি রয়েছেন, পঞ্চায়েত সদস্য শীতল মাঝি এবং সুপারভাইজার আসিস সাঙ্কি । দীপঙ্কর বরের নিজের গাড়ি ছিল। তিনি নিজেএ গাড়িটি চালাচ্ছিলেন। ইতিমধ্য়েই ঘটনাস্থলে এসে পৌঁছেছেন পরিবারের লোকজন। এই ঘটনায় শোকস্তব্ধ  খানাকুলের গোটা কিশোরপুর এলাকা।

আরও পড়ুন, জেএনইউ-র মতো হামলা হতে পারে বিশ্বভারতীতে, সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল ভিডিও

ভোর রাতে, একটি অলটো গাড়ি করে যাচ্ছিলেন কিশোরপুর-১ অঞ্চলের চারজন বাসিন্দা । আচমকা মাছের দশ চাকা লরিটি রাস্তায় উঠে এলে তীব্র গতিতে  আসা অলটো-টি, লরির পেছনে ধাক্কা মারে এবং  লরি পেছনে আটকে যায় গাড়িটি। গাড়িটিকে টানতে টানতে অনেকদূর নিয়ে চলে যায় লরিটি। ঘটনাস্থলেই চারজনের  মারা যায়। তবে এই বিষয়ে তদন্তে নেমেছে পুলিশ। এর পিছনে অন্য় কোনও কারণ আছে কিনা খতিয়ে দেখছে পুলিশ। তবে আবহাওয়া দফতর বুধবার থেকে রাজ্য়ে ঘন কুয়াশার সতর্কতা জারি করেছিল। তাই আগে থেকেই সড়ক পরিবহনের ক্ষেত্রে সাবধানতা অবলম্বনের পরামর্শ দিয়েছিল আলিপুর আবহাওয়া দপ্তর। তারপরেও এড়ানো গেল না দুর্ঘটনা। প্রাণ হারাতে হল  কিশোরপুর-১ অঞ্চলের চারজন বাসিন্দার।