শাহাজান আলি, পশ্চিম মেদিনীপুর-শিক্ষকদের জোড়া আন্দোলনে দিনভর উত্তপ্ত রইল পশ্চিম মেদিনীপুর প্রাথমিক শিক্ষা সংসদ অফিস। টেট পরীক্ষায় পাস করে নিয়োগের দাবিতে খোল-কীর্তন নিয়ে আন্দোলন করলেন চাকরি প্রার্থীরা। অন্যদিকে, নিজেদের জেলায় নিয়োগের দাবিতে প্রাথমিক শিক্ষা সংসদ অফিসের সামনে বিক্ষোভ দেখালেন শিক্ষকরা।

আরও পড়ুন-ফেসবুকে প্রেম করে বিয়ে, মাস খানেক সংসারের পর বিতাড়িত, স্বামীর দাবিতে ধর্ণায় বসল গৃহবধূ

মঙ্গলবার সকাল থেকে পশ্চিম মেদিনীপুর প্রাথমিক শিক্ষা সংসদের অফিসে জড়ো হন ঝাড়গ্রাম জেলার প্রাথমিক শিক্ষকরা। যাঁরা অধিকাংশই পশ্চিম মেদিনীপুরের বিভিন্ন ব্লকের বাসিন্দা। তবে তাঁরা ঝাড়গ্রাম জেলার বিভিন্ন প্রাথমিক বিদ্যালয়ে নিযুক্ত রয়েছেন। তাঁদের দাবি, শিক্ষা দফতরের নতুন ঘোষণা অনুযায়ী প্রতিটি প্রাথমিক শিক্ষক নিজের নিজের জেলার স্কুলে নিয়োগ পাবেন। সেই নিয়মে রাজ্যের প্রতিটি প্রাথমিক শিক্ষক নিজের নিজের জেলায় বিদ্য়ালয়ে নিয়োগ পেয়েছেন। কিন্তু, ঝাড়গ্রাম জেলায় কর্মরত প্রাথমিক শিক্ষকরা নিজের জেলায় ফিরতে পারেননি। এই অবস্থায় তাঁদের বদলির দাবিতে এদিন প্রাথমিক শিক্ষা সংসদের অফিসে বিক্ষোভ দেখান।

 

আরও পড়ুন-অসুস্থ স্বামীর সেবা করতে 'অনীহা', চার তলা থেকে স্বামীকে ছুঁড়ে ফেলে দিল স্ত্রী

অন্যদিকে, প্রাথমিক শিক্ষা সংসদের অফিসে বিক্ষোভ দেখান ২০১৫ সালে টেট ও ডিএলএড পাস করা চাকরি প্রার্থীরা। মেদিনীপুর শিক্ষা সংসদের অফিসের সামনে হাজির হয়ে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন তাঁরা। অবিলম্বে তাঁদের নিয়োগের দাবি জানান তাঁরা। তাঁদের দাবি, সরকারের প্রতিশ্রুতি মতো টেট ও ডিএলএড পাস করা চাকরি প্রার্থীদের নিয়োগ করতে হবে। তা নাহলে জেলা জুড়ে বড়সড় আন্দোলনের হুঁশিয়ারি দিয়েছেন তাঁরা। তাঁদের আন্দোলনকে আকর্ষণীয় করে তুলতে খোল-কীর্তন নিয়ে কবিয়াল গানের সুরে অভিনব আন্দোলন শুরু করেন। এই জোড়া বিক্ষোভের জেরে দিনভর উত্তপ্ত থাকল পশ্চিম মেদিনীপুর প্রাথমিক শিক্ষা সংসদ অফিস চত্বর। জেলা বিদ্যালয় পরিদর্শককে স্মারকলিপি জমা দেন তাঁরা।