সঞ্জীব কুমার দুবে, পূর্ব মেদিনীপুর: তৃণমূল নেতাদের ডাকে সাড়া না দেওয়াটাই কি কাল? এবার ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার হল নিখোঁজ বিজেপি নেতার। ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে পূর্ব মেদিনীপুরের হলদিয়ায়। মৃতদেহটি ময়নাতদন্তে পাঠানো হয়েছে। তদন্তে নেমেছে পুলিশ।

আরও পড়ুন: দলের দুই প্রাক্তন সম্পাদককে বহিষ্কার, বিতর্ক তুঙ্গে গেরুয়াশিবিরের অন্দরে

মৃতের নাম পূর্ণচন্দ্র দাস। পূর্ব মেদিনীপুরেই কাঁথি সাংগঠনিক জেলার হলদিয়া ২ নম্বর অঞ্চলের ৪১ নম্বর বুথের সভাপতি ছিলেন তিনি।  পরিবারের লোকেদের দাবি, মঙ্গলবার ওই বিজেপি নেতাকে ডেকে পাঠান স্থানীয় তৃণমূল নেতারা। কিন্তু তিনি যাননি। এরপর বুধবার সকালে আচমকাই নিখোঁজ হয়ে যান পূর্ণচন্দ্র। বিকেলে বাড়ির কাছে একটি পানে বোরোজের কাছে তাঁর ঝুলন্ত দেহ দেখতে পান স্থানীয় বাসিন্দারা। ঘটনাটি জানাজানি হতেই চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে এলাকায়। কীভাবে মারা গেলেন বিজেপি-র বুথ সভাপতি? পরিবারের লোকেদের দাবি, তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরাই পরিকল্পনামাফিক তাঁকে খুন করেছেন। ঘটনার তদন্তে নেমেছ পুলিশ। এখনও পর্যন্ত কেউ গ্রেফতার হয়নি।

আরও পড়ুন: নাবালকের ট্র্য়াক্টর উল্টে মৃত্যু মহিলার, 'বেফাঁস' মন্তব্য় করায় গণপ্রহার বিজেপি নেতাকে

উল্লেখ্য়, গত ১২ জুলাই উত্তর দিনাজপুরের বালিয়া মোড়ে একটি  বন্ধ দোকানের সামনে থেকে উদ্ধার হয় এলাকার বিজেপি বিধায়ক দেবেন্দ্রনাথ রায়ের ঝুলন্ত দেহ। পরিবারের লোকেদের দাবি, আগের দিন গভীর রাতে কেউ বা কারা বিধায়ককে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে যায়। এরপর আর বাড়ি ফেরেননি তিনি। পরিকল্পনামাফিক খুনের অভিযোগ তোলেন পরিবারের লোকেরা। ঘটনার সিবিআই তদন্তের দাবিতে হাইকোর্টের মামলাও করেন নিহত বিধায়কের স্ত্রী। যদিও সেই আবেদন খারিজ হয়ে যায়। একই দাবিতে উত্তরবঙ্গে একদিনের বনধও পালন করে বিজেপিও। সেই ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতে এবার ঝুলন্ত দেহ মিলল দলের বুথ সভাপতির।