সঞ্জীব কুমার দুবে, পূর্ব মেদিনীপুর-প্রেমিক-প্রেমিকার সম্পর্কের টানা পোড়েনের জের। নজিরবিহীন ঘটনা ঘটে গেল পূর্ব মেদিনীপুরে। প্রকাশ্য রাস্তার উপর প্রেমিকার গলায় ছুরি চালিয়ে দিল প্রেমিক। শুধু তাই নয়, এরপর নিজেকে শেষ করতে নিজেই নিজের গলা কেটে ফেলে। ভর সন্ধ্যায় ঘটনার জেরে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে এলাকায়।

আরও পড়ুন-করোনা আবহে 'বেতনহীন-নেই বোনাস', পুজোর মুখে নতুন জট হুগলি নদী জলপথ পরিবহনে

চাঞ্চল্যকর এই ঘটনাটি ঘটেছে পূর্ব মেদিনীপুরের মহিষাদলে বাসুলিয়া। জানাগেছে, এলাকার বছর পঁচিশের যুবক অসীম ঝুলকি পাহালানপুরের বাসিন্দা। অন্যদিকে প্রেমিকা সতেরো বছরের প্রেমিকা সুচিত্রা বাড়-এর বাসুলিয়া এলাকায়। অভিযোগ, সুচিত্রা সঙ্গে ভালবাসার সম্পর্ক গড়তে চেয়েছিল অসীম। আচমকা সেই সম্পর্কে ছেদ পড়ে যায়। বৃহস্পতিবার সন্ধে সাতটা নাগাদ, সুচিত্রা যখন টিউশন থেকে বাড়ি ফিরছিল অসীম ঘিরে ধরে তাঁর মোবাইল ছিনিয়ে নেয়। এরপর, সুচিত্রা বাড়ি ফিরে এসে অসীমের মোবাইলে ফোন করে। তখন সুচিত্রাকে দেখা করতে বলে অসীম। সুচিত্রা অসীমের সঙ্গে দেখা করার জন্য বাড়ির বাইরে বেরোলে তাঁর পিছু নেয় মা ও দিদি। 

আরও পড়ুন-বেতন-বোনাসের দাবিতে শ্রমিক অসন্তোষ, জুটমিল বন্ধের প্রতিবাদে রণক্ষেত্র টিটাগড় রোড

রাস্তার উপর দেখা করতে গেলে অসীম ও সুচিত্রার মধ্যে বচসা শুরু হয়। বচসা চলাকালীন অসীম আচমকা সুচিত্রার গলায় ছুরি চালিয়ে দেয়। পরে তাঁর হাতেও ছুরির আঘাত করে। এরপর নিজেকে শেষ করে দিতে নিজের গলায় ছুরি চালিয়ে দেয় অসীমও। প্রকাশ্য রাস্তার উপর এই ধরনের ঘটনা দেখে হতবাক হয়ে যান স্থানীয়রা। ঘটনাস্থলেই লুটিয়ে পড়ে দুজন। স্থানীয়রা তাঁদের উদ্ধার করে প্রথমে তাঁদের বাসুলিয়া গ্রামীণ হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে অবস্থার অবনতী হলে তাঁদের পূর্ব মেদিনীপুর জেলা হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। আশঙ্কাজনক অবস্থায় দুই জনই হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।