বেহাল সেতুতে ভারী যান চলাচলে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে প্রশাসন। কিন্তু সেই নিষেধাজ্ঞা আর মানছে কে! ঘন কুয়াশায় দুর্ঘটনা ঘটল মেদিনীপুর শহর লাগোয়া মোহনপুরে ব্রিজে। দুটি লরির সংঘর্ষে প্রাণ গেল এক যুবকের। দুটি বাইকের সংঘর্ষে আহত হয়েছেন আরও দু'জন।

মেদিনীপুর শহরের সংযোগরক্ষাকারী ৬০ নম্বর জাতীয় সড়কের উপরই রয়েছে একটিই মাত্র সেতু।  কিন্তু সেই মোহনপুর ব্রিজের এখন বেহাল দশা। এতটাই বেহাল দশা যে, সেতুতে ভারী যানচলাচলে ক্ষেত্রে জারি করা হয়েছে নিষেধাজ্ঞা। তবে প্রশাসনের নজরদারি না থাকায়  ওই সেতুতে দিয়ে  লরি যাতায়াত করে। অন্তত তেমনই দাবি স্থানীয় বাসিন্দাদের। জানা গিয়েছে, বুধবার রাতে মোহন ব্রিজের উপর চিপসবোঝাই একটি দশচাকার লরি খারাপ হয়ে যায়। লরিটির ব্রিজের উপরই দাঁড়িয়েছিল। বৃহস্পতিবার ভোরে যখন বালিবোঝাই একটি লরি সেতুতে ওঠে, তখনই ঘটে দুর্ঘটনা। ,পুলিশ জানিয়েছেন, ভোরের দিকে ঘন কুয়াশার কারণে দৃশ্যমানতা যথেষ্ট কম ছিল। মেদিনীপুর থেকে  খড়গপুরের দিকে যাওয়ার পথে পিছন থেকে চিপস বোঝাই লরিটিকে সজোরে ধাক্কা মারে বালি বোঝাই লরিটি।  দুর্ঘটনার পর বালিবোঝাই লরি থেকে খালাসিকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে গেলে, তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন চিকিৎসকরা। মৃতের পরিচয় এখনও জানা যায়নি।  

আরও পড়ুন: খাটের উপরেই অবসরপ্রাপ্ত রেলকর্মীর দেহ, মহিলাঘটিত সম্পর্কের জের বলে সন্দেহ পুলিশের

এদিকে এই দুর্ঘটনার পর মেদিনীপুরের শহরের মোহনপুরে ব্রিজে যান চলাচল পুরোপুরি বন্ধ হয়ে যায়। লাগোয়া এলাকায় তীব্র যানজট তৈরি হয়। তীব্র যানজট কাটিয়ে বেরোতে গিয়ে দুর্ঘটনার কবলে দু'জন বাইক আরোহী।  মেদিনীপুর শহরের ধর্মা এলাকায় বাইক দুটি মুখোমুখি সংঘর্ষ হয় বলে জানা গিয়েছে। গুরুতর জখম বাইক আরোহীদের ভর্তি করা হয়েছে মেদিনীপুরে মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে।