Asianet News Bangla

রুম পরিষ্কারের নামে ডেকে ছাত্রীর শ্লীলতাহানি, গ্রেফতার শিক্ষক

  • ফের  ছাত্রীর শ্লীলতাহানীর অভিযোগে গ্রেফতার  শিক্ষক 
  •  ঘটনাটি ঘটেছে  ঘাটালের গুরুদাস নগর উচ্চ বিদ্যালয়ে  
  • বুধবার ধৃত শিক্ষককে তোলা হয় ঘাটাল মহকুমা আদালতে 
  •  বিচারক শিক্ষকের ১৪ দিনের জেল হেফাজতের নির্দেশ দেন  
Teacher arrested on molestation charge in Midnapore
Author
Kolkata, First Published Feb 12, 2020, 6:14 PM IST
  • Facebook
  • Twitter
  • Whatsapp

ফের এক সপ্তম শ্রেণীর ছাত্রীর শ্লীলতাহানীর অভিযোগে গ্রেফতার উচ্চ বিদ্যালয়ের এক শারীর শিক্ষা বিভাগের শিক্ষক। ঘটনাটি ঘটেছে পশ্চিম মেদিনীপুরের ঘাটালের গুরুদাস নগর উচ্চ বিদ্যালয়ে। ছাত্রীকে রুম পরিষ্কার এর নামে ডেকে আপত্তিকর স্থানে হাত দেয়ার অভিযোগে গ্রেপ্তার করা হয় ওই শিক্ষককে। ঘাটাল আদালতে তোলা হলে বিচারক ১৪ দিনের জেল হেফাজতের নির্দেশ দেন।

আরও পড়ুন, মুরগির মাংস ও ডিমের উৎপাদন বৃদ্ধি নিয়ে পদক্ষেপ, উদ্যোগ রাজ্য সরকারের

 জানা গিয়েছে, ওই বিদ্যালয়ের শারীর শিক্ষা বিভাগের শিক্ষক চন্ডীদাস গড়াই এই অপকর্মের অভিযোগে গ্রেপ্তার হয়েছেন। ছাত্রীর মায়ের অভিযোগ-মঙ্গলবার বিদ্যালয়ের শ্রেণিকক্ষ পরিষ্কারের জন্য একটি অন্য রুমে নিয়ে গিয়েছিলেন শিক্ষক চন্ডীদাস। সেখানে সপ্তম শ্রেণির ওই ছাত্রীর শরীরের বিভিন্ন জায়গায় তিনি হাত দিয়েছিলেন বলে অভিযোগ। এরপরই বিদ্যালয় থেকে বাড়িতে ফিরে ওই ছাত্রী মাকে সব জানিয়ে দেয়। ঘটনার পরে ঘাটাল থানায় অভিযোগ করা হলে মঙ্গলবার রাতেই পুলিশ ওই শিক্ষককে গ্রেপ্তার করে।এই ঘটনায় ষড়যন্ত্রের অভিযোগ করছেন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সমরেন্দ্র আদক। সমরেন্দ্র বাবু জানিয়েছেন,' বিষয়টির মধ্যে রাজনৈতিক অথবা অন্যান্য শত্রুতার ব্যাপার থাকতে পারে। তবে যেহেতু বিষয়টি পুলিশ ও আদালতের কাছে গিয়েছে সেহেতু আদালতের বিচারই আমরা মানবো।'

আরও পড়ুন, বেপরোয়া ট্রাক্টর পিষে দিল শিশুকে, অগ্নিগর্ভ চাকদহ

বুধবার ধৃত শিক্ষককে তোলা হয় ঘাটাল মহকুমা আদালতে। এই ঘটনা চারদিকে জানাজানি হয়ে যেতেই শিক্ষককে আদালতে তোলার মুহূর্তে ব্যাপক ভিড় জমে যায়। ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন অন্যান্য অভিভাবকেরা। পুলিশ পরিস্থিতি সামাল দিয়ে ধৃত শিক্ষককে আদালতে হাজির করে। অভিযোগ দেখে বিচারক শিক্ষকের ১৪ দিনের জেল হেফাজতের নির্দেশ দেন। 

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios