বন্ধু দেশ কাজ করল শত্রুর মতো। পাকিস্তানকে এন ৯৫ মাস্কের পরিবর্তে জাঙিয়া থেকে তৈরি মাস্ক পাঠাল চিন। স্পঞ্জের তৈরি এই মাস্ক  দেখে যার পর নাই চটেছে পাকিস্তান।  সোশ্য়াল মিডিয়ায় এই খবর ছড়িয়ে পড়তেই হাসির খোরাক হয়েছে ইমরান খানের দেশ।

লকডাউনকে বুড়ো আঙ্গুল পাকিস্তানে, পুলিশের গাড়িতে পাথর ছুঁড়ল উন্মত্ত জনতা, দেখুন ভিডিও.

করোনা বিভীষিকা আটকাতে এমনিতেই নাস্তানাবুদ পাকিস্তান। দেশের মানুষকে করোনা থেকে সুরক্ষা দিতে বন্ধু চিনের ওপরই ভরসা করেছিল ইমরান। কিন্তু প্রয়োজনের সময় পাকিস্তানের হাত ছাড়ল চিন। পাকিস্তানের স্বাস্থ্য়কর্মী তথা পাকিস্তানিদের মাস্কের নামে লোক ঠকাল চিনের সরকার। বিশ্ব স্বাস্থ্য় সংস্থার নির্দেশিকা মেনে কাপড়ের মাস্ক চেয়েছিল পাকিস্তান। যার পরিবর্তে আন্ডারওয়ারের মতো দেখতে স্পঞ্জের মাস্ক পাঠালো চিন। যা দেখে চটেছে পাকিস্তানের মিডিয়া। ইতিমধ্য়েই চিনকে এই কাজের জন্য় ভৎর্সনা করেছে তারা।

জুনে পরিস্থিতি হবে সবচেয়ে খারাপ, সমীক্ষা বলছে লকডাউন চলতে পারে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত

পাকিস্তানের সিন্ধু প্রদেশে ইতিমধ্য়েই পৌঁছে গিয়েছে সেই সেই মাস্কের একাধিক ট্রাঙ্ক। কাতার হাসপতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা তা পরতে অস্বীকার করেন। এমনকী মাস্কের নামে তাদের সঙ্গে চিন তামাশা করেছে বলে অভিযোগ করেন তাঁরা। হাসপাতালের স্বাস্থ্য়কর্মীরাও এর তীব্র প্রতিবাদ করেন। কেন সিন্ধ প্রদেশের প্রশাসন মাস্ক না দেখে নিল,তা নিয়ে প্রশ্ন করেছেন চিকিৎসকরা। 

করোনা রুখতেই কি কৃষ্ণাঙ্গদের পায়ে চুমু খেলেন পোপ ফ্রান্সিস, দেখুন সেই ভিডিও.

করোনা ভাইরাস নিয়ে ইতিমধ্য়েই নাস্তানাবুদ পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে পাকিস্তানে। প্রকাশ্যেই ইমরান খানের সরকারকে গালিগালাজ করছে জনগণ। আইসোলেশনের নামে করোনা রোগীর সংস্পর্শে আসা ব্যক্তিদের অবস্থা ভয়াবহ। হাসপাতাল তো দূর, অস্বাস্থ্য়কর পরিবেশে রাখা হয়েছে তাঁদের। সেখান খাবার দাবারের ব্যবস্থাও ঠিকমতো নেই বলে বার বার অভিযোগ করছে কোয়ারান্টাইনে থাকা ব্যক্তিরা। 

#COVID19 #pandemic #China -- This video reports that #Pakistan had not received N-95 masks as promised. When the consignment was checked, authorities found that China had sent masks made of underwear. pic.twitter.com/XtJFd3IWsr

— RuudWedding (@RuudWedding) April 4, 2020 

 

দেশের মানুষের তাগিদে বিশ্বের কাছে হাত পাতছে ইমরান খানের সরকার। মাস্কের আগেই ঠিক করা হয়ে গিয়েছে করোনায় মৃতদের জন্য় আলাদা কবরস্থানের জায়গা। যা দেখে ইমরানের নিন্দা করতে ছাড়ছে না বিরোধীরা। পাকিস্তানের সরকারি  হিসেব বলছে,ইতিমধ্যে দেশে আক্রান্তের সংখ্যা  ২,৬৩৭। এখনও পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে ৪০ জনের। পরিস্থিতি মোকাবিলায় ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত পাকিস্তানে লকডাইনের ঘোষণা করেছে পাক সরকার।