পাকিস্তানের প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি এবং পাকিস্তান পিপলস পার্টির সহ-সভাপতি আসিফ আলি জারদারি-কে সোমবার গ্রেফতার করল পুলিশ। জাল ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট এবং টাকা পাচারের মতো অভিযোগ রয়েছে তাঁর ওপর। এদিন ন্যাশনাল অ্যাকাউন্টিবিলিটি ব্যুরোর একটি দল ইসলামাবাদে তাঁর বাসভবনে হানা দেয় এবং সেখান থেকেই বেনজির ভুট্টোর স্বামী জারদারিকে গ্রেফতার করা হয়।  

সংবাদ সংস্থা সূত্রে জানা গিয়েছে, প্রথমে পুলিশকে তাঁর বাড়িতে ঢুকতে বাধা দেওয়া হয়। এরপর তদন্তকারী সংস্থা এবং পুলিস তাঁর বাড়িতে প্রবেশ করে। প্রথমে রাজি না হলেও পরে দীর্ঘক্ষণ কথোপকথনের পর তিনি আত্মসমর্পন করতে রাজি হন বলে জানিয়েছেন দেশের দুর্নীতি দমন কমিশনের মুখপাত্র নওয়াজিশ আলী।

এর আগে তাঁর বিরুদ্ধে ১৫০ মিলিয়ন অর্থ পাচারের অভিযোগ রয়েছে তাঁর বিরুদ্ধে। এই একই অভিযোগে অভিযুক্ত ছিলেন তাঁর স্ত্রী তথা পাকিস্তানের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী বেনজির ভুট্টোও। তবে ২০০৭-এর সন্ত্রাস হামলায় তাঁর মৃত্যুর পর তদন্ত থেকে বাদ দেওয়া হয় তাঁকে। তদন্তে নেমে গোয়ান্দারা প্রায় ১১,৫০০ জাল অ্যাকাউন্ট-এর হদিশ পেয়েছেন তদন্তকারীরা। সেইমতো নজরদারিও চালানো হচ্ছে প্রায় ৯২৪ অ্যাকাউন্ট হোল্ডারের ওপর। অভিযোগ এইসব ভুয়ো ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টগুলিকে কাজে লাগিয়ে প্রাক্তন পাক রাষ্ট্রপতি ও তাঁর বোন ফারিয়াল তালপুর নিজেদের ব্যক্তিগত ব্যক্তিগত কোম্পানির হয়ে টাকা লেনদেন করেছেন। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য এই মামলায় অন্যতম অভিযুক্ত ফারিয়াল তালপুরকে এখনও গ্রেফতার করা হয়নি।