নতুন করে কূলভূষণ মামলার আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে চাপ বেড়েছে পাকিস্তানের উপর। গত মাসেই রাষ্ট্রসঙ্ঘের সাধারণ পরিষদে আন্তর্জাতিক ন্যায় আদালতের প্রধান বিচারপতি আব্দুলকাওয়াই ইউসুফ পাকিস্তানকে তুলোধোনা করেছিলেন। তাদের নির্দেশেও কাজ হয়নি বলে অভিযোগ করেছিলেন। এই চাপের মুখেই এবার নিজেদের সেনা আইনে বড়সড় রদবদল ঘটাতে চলেছে ইমরান প্রশাসন। এর ফলে গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগে আটক প্রাক্তন ভারতীয় নৌসেনা অফিসার কুলভূষণ যাদব অসামরিক আদালতেই তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করতে পারবেন।

সূত্রের খবর মুখে যতই বলুন, পাক সেনাবাহিনীর উপর কোনও নিয়ন্ত্রণই নেই ইমরান খানের। এদিকে আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে কূলভূষণ মামলা নিয়ে ক্রমে চাপ গলায় এঁটে বসছে। এই অবস্থায়, তাঁকে সেনার আওতা থেকে বের করে আনার জন্যই সেনা আইনে রদবদল ঘটাতে চলেছেন ইমরান খান।

২০১৭ সালে, কুলভূষণ যাদবকে পাকিস্তানের এক সামরিক আদালত দোষী সাব্যস্ত করেছিল। গুপ্তচরবৃত্তি ও সন্ত্রাসবাদী কার্যকলাপ চালানোর  অভিযোগে তাঁকে মৃত্যুদণ্ডে দেওয়া হয়। সেই বিচার হয়েছিল বন্ধ কক্ষে। পাকিস্তানের দাবি, কুলভূষণ যাদবকে ২০১৬ সালে বেলুচিস্তান থেকে 'গ্রেফতার' করেছিল পাক সেনাবাহিনী। ভারত বরাবরই এই অভিযোগ উড়িয়ে দিয়ে বলেছে, এই প্রাক্তন ভারতীয় নৌসেনা কর্তা ইরানের ব্যবসায়িক সফরে যাচ্ছিলেন। পথে পাকিস্তানের সেনা তাঁকে অপহরণ করে।