গত ফেব্রুয়ারি মাসে পুলওয়ামার সিআরপিএফ জওয়ানদের নির্বিচারে হত্যার পর ভারত পাল্টা আঘাত হেনেছিল ভারত। পাকিস্তানের বালাকোটের জইশ-ই-মহম্মদ-এর জঙ্গি ঘাঁটিতে এয়ার স্ট্রাইক চালিয়েছিল ভারতীয় সেনা জওয়ানরা। আর তারপর থেকেই গত ২৬ ফেব্রুয়ারি থেকে আকাশসীমা বন্ধ করে দেয় পাকিস্তান।

আর এবার পাকিস্তান স্পষ্ট জানিয়ে দিল যে, যতক্ষণ না পর্যন্ত এয়ারবেস থেকে ভারত যুদ্ধবিমান সরিয়ে নিচ্ছে ততক্ষণ পর্যন্ত ভারতের বাণিজ্যিক বিমানের জন্য খোলা হবে না এয়ারবেস। এদিন বিমানবাহিনীর সচিব শাহরুখ নুসরত জানান, ভারতের তরফ থেকে আবেদন করা হয়েছে যাতে, পাকিস্তানের আকাশসীমা খুলে দেওয়া হয়। আর এরপরই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় যে,  ভারত নিজের যুদ্ধবিমানগুলি সরিয়ে নিলে তবেই পাকিস্তান তার আকাশসীমা খুলবে। 

প্রসঙ্গত বিষয়টি প্রথম উঠে আসা পাকিস্তানেরর সেনেট স্ট্যান্ডিং কমিটির তরফ থেকে আসা প্রশ্নের উত্তরে। সেখানে  আলোচনা করা হচ্ছিল যে, পাকিস্তানের আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের তরফে কোন কোন আকাশপথ ব্যবহার করা লাভজনক  এবং কোন কোন আকাশপথ ব্যবহার করার ফলে ক্ষতির মুখে পড়তে হতে পারে। কারণ ভারতের জন্য আকাশপথ বন্ধ রাখার জন্যই একাধিক আন্তর্জাতিক বাণিজ্যিক বিমান পাকিস্তানের আকাশপথ ব্যবহার করতে পারছে না। এর জন্য ঘুরপথে বিকল্প ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হচ্ছে। কিন্তু তারপরেও নিজের সিদ্ধান্ত সাফ জানিয়ে দিল পাকিস্তান।