অধিকৃত কাশ্মীরকে বরাবরই নিজেদের বলে দাবি করে এসেছে পাকিস্তান। এমনকি নিজেদের মানচিত্রেও একে অন্তর্ভুক্ত করেছে। অথচ স্কুলপাঠ্য বইতে সেই কাশ্মীরকেই পাকিস্তানের মানচিত্রে দেখান হয়নি। সেই রাগেই পাকিস্তানের পঞ্জাব প্রদেশে ১০০টিরও বেশি স্কুল বই বাতিল করে দিল সরকার। 

 ওই বইগুলিতে আপত্তিকর বিষয় রয়েছে বলে এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হল বলে পঞ্জাব প্রদেশের প্রশাসনের তরফে দাবি করা হয়েছে। তবে ওই বইগুলিতে আরও বেশকিছু ভুল ধরা পড়েছে বলে জানা যাচ্ছে। এমনকি পাকিস্তানের প্রাণপুরুষ মহাম্মদ আলী জিন্নার জন্মসালও কয়েকটি বইতে ভুল রয়েছে। একই রকম ভাবী জাতীয় কবি মহম্মদ ইকবালের জন্মসালেও ভুল রয়েছে। পাশাপাশি  কয়েকটি বইতে দ্বি-জাতি তত্ত্ব নিয়েও প্রশ্ন তোলা হয়েছে। 

আরও পড়ুন: লক্ষ্য সেই ভারত, পাকিস্তানের সঙ্গে হাত মিলিয়ে জৈব অস্ত্র বানাচ্ছে চিন, ফাঁস হলো গোপন রিপোর্ট

পঞ্জাব প্রদেশের সরকারি ও বেসরকারি স্কুলগুলিতে সবমিলিয়ে প্রায় ১০ হাজার বই পাঠ্যপুস্তক হিসাবে অন্তর্ভুক্ত হয়েছে। এই বইগুলি পর্যালোচনা করার জন্য পঞ্জাহ সরকার ৩০ টি কমিটি গঠন করেছিল। তাদের মধ্যে থেকেই ১০০টি বইয়ের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করা হল। যাদের মধ্যে রয়েছে অক্সফোর্ড, কেমব্রিজের মত আন্তর্জাতিক প্রকাশন সংস্থার বইও। 

আরও পড়ুন: এসে গিয়েছে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ, ইউরোপ সহ পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে নতুন করে শুরু নিয়মের কড়াকড়ি

ইতিমধ্যে নিষেধাজ্ঞা জারি করা বইগুলিকে বাজার থেকে তুলে নিতে শুরু করেছে পাক প্রশাসন। এর আগে গত মাসেই পঞ্জাব বিধানসভার ওপর লেখা ব্রিটিশ-আমেরিকান লেখক  লেসলে হ্যাজলেটনের ২টি বইকে নিষিদ্ধ করেছিল পঞ্জাব সরকার।