বিসিসিআই-র অনূর্ধ্ব ২৩ একদিনের ট্রফির ফাইনালে উঠলো বাংলা। সেমি ফাইনালে চণ্ডীগড়কে হারিয়ে বিসিসিআই-র এই টুর্নামেন্টে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার প্রহর গুণছে বাংলার ছেলেরা। শুক্রবার চণ্ডীগড়কে ১৫০ রানে হারিয়ে ফাইনালে কোয়ালিফাই করলো ঈশান পোড়েলরা। দেহরাদুনের মাঠে প্রথমে টসে জিতে ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল চণ্ডীগড়। আর সেই সুবাদে প্রথম থেকেই ভালো ব্যাটিং করতে দেখা যায় বাংলার ছেলেদের। ব্যাট হাতে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ২৩৩ রান তোলার পর বল হাতে দাপট দেখাতে শুরু করে বাংলার বোলাররা। আর সেই সঙ্গে ম্য়াচ জিতে নেয় বাংলার এই অনূর্ধ্ব ২৩ দল। বল হাতে এদিন ৫ উইকেট নিয়ে দলকে জেতান ঈশান পোড়েল।

আরও পড়ুন, ইডেনে পিঙ্ক বল টেস্টে থেকেই কাজ শুরু করেছে বিসিসিআই, ছবি উঠল ক্যামেরায়

প্রথমে ব্যাট করে ৫০ ওভারে ৯ উইকেট হারালেও ২৩৩ রান বোর্ডে তোলে অনূর্ধ্ব ২৩ বাংলা দল। সেই সুবাদে ব্যাট হাতে বাংলার হয়ে ৭১ রানের ইনিংস খেলেন অঙ্কুর পাল। ৬০ রান করেন রনজোৎ সিং। ২৯ করেন অধিনায়ক কাজি জুনায়েদ সুফি। পাশাপাশি ২১ রান করেন অগ্নীভ পান। অপরদিকে, বোলিং করতে নেমে নজর কাড়েন অনূর্ধ্ব ২৩ বাংলা দলের বোলাররা। চণ্ডীগড়ের প্রথম তিন ব্যাটসম্যানকে একা হাতেই আউট করেন ঈশান পোড়েল। তার পাশাপাশি মাত্র ৮৩ রানে ৩২ ওভারের মাথায় অলআউট হয়ে যায় চণ্ডীগড়। বল হাতে ৫ উইকেট নেন ঈশান। ২ উইকেট নেন প্রদীপ্ত প্রামাণিক। একটি করে উইকেট পান আকাশদীপ ও মিশ্র। এই জয়ের সুবাদে এবার রবিবার বিসিসিআই অনূর্ধ্ব ২৩ একদিনের ট্রফির ফাইনাল খেলবে অনূর্ধ্ব২৩ বাংলা দল।

আরও পড়ুন, আইপিএল দল গুলিকে অভিনব বার্তা এনসিএ প্রধান রাহুল দ্রাবিড়ের

অপরদিকে, রঞ্জি ট্রফির জন্য প্রস্তুতি শুরু করে দিল বাংলা সিনিয়র দল। সিএবি ও যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় দ্বিতীত ক্যাম্পাসের মাঠে দলের ব্যাটিং পরামর্শদাতা ভিভিএস লক্ষ্মণের তত্ত্বাবধানে অনুশীলনে নেমে পড়লেন সুদীপ চট্টোপাধ্যায়, মনোজ তিওয়ারিরা। একদিনের ম্যাচ ও টি২০তে ব্যর্থ হয়েছে বাংলা। নতুন অধিনায়ক ও নতুন ভাবে নিজেদের সাজিয়ে নিয়ে গিয়েও কাজের কাজ করতে পারেনি অরুণ লালের দল। আর সেই কারণে এবার রঞ্জি ট্রফি শুরুর বেশ কিছুদিন আগেই ফের অনুশীলনে নেমে পড়লো বাংলার ক্রিকেটার। অনুশীলনের শুরুতেই শুক্রবার পেপ টক দিলেন বাংলার ব্য়াটিং পরামর্শদাতা লক্ষ্মণ। প্রায় আধা ঘণ্টারও বেশি সময় ধরে ক্রিকেটারদের বোঝান লক্ষ্মণ। দলের অনুশীলনে বাংলার সব ক্রিকেটার সহ কোচ ও সাপোর্ট স্টাফেরা হাজির থাকলেও, অনুশীলনে দেখা গেল না অশোক দিন্দাকে। তবে কি এবার রঞ্জি দল থেকেও বাদ দেওয়া হতে পারে দিন্দাকে। সেই নিয়ে কিন্তু জল্পনা উড়িয়ে দেওয়া যাচ্ছে না। ১৭ ডিসেম্বর কেরলের বিরুদ্ধে রঞ্জি অভিযান শুরু করবে বাংলা দল।