গোলাপি টেস্ট শেষ হতেই অভিনব উদ্যোগ সিএবির। ভারত ও বাংলাদেশ প্রথম দিন রাতের গোলাপি বলের টেস্ট নিয়ে কলকাতায় ছিল চরম উন্মাদনা। সেই উন্মাদনার ফল ইতিমধ্যেই পেয়েছে ইডেন গার্ডেন্স। প্রথম দুদিনের পাশাপাশি তৃতীয় দিনেও ৪৫ মিনিটের জন্যও প্রায় দর্শকে ভরে গিয়েছিল ইডেন গার্ডেন্স। তবে চতুর্থ ও পঞ্চম দিন পর্যন্ত খেলা না যাওয়া বেশ হতাশও ছিলেন বড় সংখ্যক মানুষ। বিশেষ করে অনেকেই অনলাইনে কেটে ফেলেছিলেন চতুর্থ ও পঞ্চম দিনের টিকিট। তবে সেই হতাশা এবার দূর করতে এগিয়ে এল ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন অব বেঙ্গল। চতুর্থ ও পঞ্চম দিনে একটি বলও না খেলা হওয়ায় এবার সেই টিকিটের টাকা ফেরত দিতে চলেছে সিএবি। এমনটাই ম্যাচ শেষ হওয়ার পরের দিন সোমবার জানিয়ে দিলেন সিএবির সচিব ও জগমোহন ডালমিয়ার পুত্র অভিষেক ডালমিয়া।

আরও পড়ুন, এশিয়ানেট নিউজ বাংলার সঙ্গে আলাপ চারিতায় লক্ষ্মণ, পিঙ্ক বল টেস্ট নিয়ে উচ্ছ্বসিত ভিভিএস

পিঙ্ক বলের টেস্ট রিতিমত সফল। টেস্ট ক্রিকেটে এই প্রথম এত সারাদিন ও রাত ধরে ছিল ক্রিকেট প্রেমীরা। অনেক ক্রিকেট অনুরাগীদের কপালেই জোটেনি ম্যাচের টিকিটও। তবে সব কিছুকে এড়িয়ে ২২ নভেম্বর থেকে শুরু হওয়া পিঙ্ক বলের টেস্টের তিন দিনই ইডেন ছিল ঠাসা। প্রথম ও দ্বিতীয় দিন ইডেনে হাজির ছিলেন ৬০ হাজারেরও বেশি দর্শক। একই সঙ্গে তৃতীয় দিনেও ম্যাচের শেষ অংশ দেখার জন্য হাজির ছিলেন বড় সংখ্যক মানুষ। ৪৫ মিনিটের জন্য মাঠে হাজির ছিলেন প্রায় ৪৫ হাজারেরও বেশি দর্শক। তবে শেষ দুদিনের খেলার জন্যও বড় সংখ্যক মানুষ পকেটের টাকা খরচ করে কেটে ফেলেছিলেন টিকিট। এবার সেই সব ক্রিকেট অনুরাগীদের পয়সা ফেরোত দেওয়ার কাজ শুরু করে দিল সিএবি।

দেখুন ভিডিও, প্রথম পিঙ্ক বল টেস্টে জয়, চওড়া হাসি নিয়ে ইডেন থেকে বাড়ির পথে সমর্থকরা

সিএবির তরফ থেকে সচিব অভিষেক ডালমিয়া এই বিষয় নিয়ে বলেন, 'নিয়ম ছিল টেস্ট ক্রিকেটে কোনও দিন যদি একটি বলও না খেলা হয় সেখানে টিকিটের টাকা ফেরোত দেওয়া হবে। আর সেই নিয়ম অনুযায়ী চতুর্থ ও পঞ্চম দিনে হয়নি একটিও বল। তাই এবার সেই টাকা ফেরোত দেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু করে দিয়েছে সিএবি। অন লাইন টিকিট সংস্থা গুলির সঙ্গে কথা সেরে ফেলেছে সিএবি। সেখান থেকেই টাকা ফেরোত দেওয়া হবে তাঁদের। প্রথম তিন দিন খেলাতে ইডেন গার্ডেন্স সফল হয়েছে। প্রচুর সংখ্যক মানুষ হাজির ছিলেন ইডেনে। তাই সবাইকে ধন্যবাদ। প্রথম দিন রানেত টেস্ট ভালো ভাবে অনুষ্ঠিত করতে পেরে আমরা খুশি। বিসিসিআই সভাপতি ও বাকি সবাইকেও ধন্যবাদ।'