টি-২০ ম্যাচে স্টেডিয়ামে সবচেয়ে বেশি দর্শক, আইপিএলএল ফাইনালে বিশ্বরেকর্ড

| Nov 28 2022, 07:13 PM IST

gujarat titans

সংক্ষিপ্ত

বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় ও অর্থবান টি-২০ লিগ হিসেবে আগেই নজির গড়েছে আইপিএল। এবার আরও একটি নজির গড়ল এই টি-২০ লিগ।

যে কোনও একটি টি-২০ ম্যাচে স্টেডিয়ামে সবচেয়ে বেশি দর্শকের হিসেবে বিশ্বরেকর্ড গড়ল গত আইপিএল ফাইনাল। গুজরাট টাইটানস ও রাজস্থান রয়্যালসের ম্যাচ দেখতে আহমেদাবাদের নরেন্দ্র মোদী স্টেডিয়ামে হাজির ছিলেন ১,০১,৫৬৬ জন দর্শক। এর আগে কোনও টি-২০ ম্যাচ দেখতে এত দর্শক স্টেডিয়ামে হাজির হননি। এবারের টি-২০ বিশ্বকাপে ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ দেখতে মেলবোর্ন ক্রিকেট গ্রাউন্ডে হাজির হন ৯২ হাজারেরও বেশি দর্শক। আইপিএল ফাইনাল দেখতে গিয়েছিলেন তার চেয়েও বেশি দর্শক। রবিবার বিসিসিআই-এর পক্ষ থেকে ট্যুইট করে আইপিএল ফাইনালে দর্শক সংখ্যার বিচারে বিশ্বরেকর্ড হওয়ার কথা জানানো হয়েছে। বিসিসিআই-এর ট্যুইটে লেখা হয়েছে, 'গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ড গড়ল ভারত। এটা আমাদের সবার কাছেই গর্বর মুহূর্ত। দর্শকরা যেভাবে সমর্থন করে যাচ্ছেন এবং খেলার প্রতি ভালবাসা দেখাচ্ছেন, তার ফলেই এই রেকর্ড গড়া সম্ভব হয়েছে। এই রেকর্ড গড়ার জন্য মোতেরা ও আইপিএল কর্তৃপক্ষকে অভিনন্দন।'

আইপিএল এই রেকর্ড গড়ায় খুশি বিসিসিআই সচিব জয় শাহও। তিনি ট্যুইটে লিখেছেন, 'টি-২০ ম্যাচে সবচেয়ে বেশি দর্শকের উপস্থিতির জন্য গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডের স্বীকৃতি পাওয়ায় আমরা খুব খুশি ও গর্বিত। ২০২২ সালের ২৯ মে নরেন্দ্র মোদী স্টেডিয়ামে আইপিএল ফাইনাল দেখতে হাজির হন ১,০১,৫৬৬ জন দর্শক। তার ফলেই গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ড হল। এই রেকর্ড গড়ার জন্য দর্শকদের অভিনন্দন জানাই।'

Subscribe to get breaking news alerts

 

 

আইপিএল ফাইনালে লক্ষাধিক দর্শকের উপস্থিতিতে রাজস্থান রয়্য়ালসকে হারিয়ে প্রথমবার চ্যাম্পিয়ন হয় গুজরাট টাইটানস। প্রথমে ব্যাটিং করতে নেমে রাজস্থান ৯ উইকেটে ১৩০ রান করে। সর্বোচ্চ ৩৯ রান করেন জস বাটলার। ১১ বল বাকি থাকতেই সেই রান টপকে যায় গুজরাট। সর্বোচ্চ ৪৫ রান করেন শুবমান গিল।

এদিকে, আইপিএল ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলিতে আরও বেশি ভারতীয় কোচ নিয়োগ করার পক্ষে সওয়াল করলেন প্রাক্তন ক্রিকেটার গৌতম গম্ভীর। বণিকসভা ফিকি-র একটি অনুষ্ঠানে গম্ভীর বলেছেন, 'ভারতীয় ক্রিকেটে একটা ভাল ব্যাপার হচ্ছে, ভারতীয়রা এখন জাতীয় দলে কোচি করাচ্ছেন। আমি মনে করি, ভারতীয় দলে ভারতীয় কোচই থাকা উচিত। আমরা বিদেশি কোচদের অনেক বেশি গুরুত্ব দিই ঠিকই, কিন্তু তাঁরা এখানে আসেন অর্থ রোজগার করতে। তারপরেই তাঁরা উধাও হয়ে যান। খেলায় আবেগ খুব গুরুত্বপূর্ণ। যাঁরা দেশের হয়ে খেলেছেন শুধু তাঁরাই ভারতীয় ক্রিকেট দলকে নিয়ে আবেগতাড়িত হতে পারেন।'

আরও পড়ুন-

কিছুদিনের মধ্যেই মাঠে ফিরছেন, আগামী আইপিএল-এ খেলবেন জোফ্রা আর্চার

আগামী আইপিএল-এ দেখা যাবে না অ্যালেক্স হেলস, অ্যারন ফিঞ্চ, স্যাম বিলিংসকে

আইপিএল ২০২৩: রাসেল, নারিনকে ধরে রাখল কেকেআর, ছেড়ে দিল রাহানে, ফিঞ্চকে

 
Read more Articles on