নোবেল জয়ী বাঙালি অভিজিৎ বিনায়ক বন্দ্যোপাধ্যায়কে সম্মান জানালেন বাংলার দুই প্রধান ক্লাব ইস্টবেঙ্গল ও মোহনবাগান। দুই ময়দান প্রধান ক্লাবের তরফ থেকেই অন্যতম এই শ্রেষ্ঠ বাঙালিকে সম্মান জানানো হল বৃহস্পতিবার। নোবেল পুরস্কার পাওয়ার পর বুধবার বাংলায় পা রেখেছিলেন নোবেল জয়ী বাঙালি অভিজিৎ। তার এই কীর্তি বাঙালি ও বাংলার জন্য অতনন্ত্য গর্বের। আর সেই নোবেল জয়ী বাঙালিকেই এবার আজীবন সদস্য পদ দিল ভারতের জাতীয় ক্লাব মোহনবাগান। একই সঙ্গে শতবর্ষ ক্লাব ইস্টবেঙ্গলের পক্ষ থেকেও আজীবন সদস্য পদ দিয়ে সাম্মানিক দেওয়া হবে অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়কে। এমনটা বৃহস্পতিবার ঘোষণা করল লাল-হলুদের অন্যতম কর্তা সাধারন সম্পাদক কল্যাণ মজুমদার।

আইলিগের প্রস্তুতি তুঙ্গে ইস্টবেঙ্গল শিবিরে, নতুন টিম বাসের জন্য ভোটিং সোশ্যাল মিডিয়ায়

বৃহস্পতিবার অন্যতম নোবেল জয়ী বাঙালি অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়ের কলকাতার বাসভবন গিয়ে তাঁকে মোহনবাগাবন ক্লাবের পক্ষ থেকে তাঁকে স্মারক ও তুলে দেওয়া হয় মোহনবাগান ক্লাবের পক্ষ থেকে। মোহনবাগান ক্লাবের পক্ষ থেকে তাঁর বাড়িতে যান মোহনবাগান ক্লাবের সহকারি সাধারণ সম্পাদক সৃঞ্জয় বসু ও সহকারি কোষাধক্ষ্য দেবাশিস দত্ত। আর এই দুজনেই মোহনবাগান ক্লাবের পক্ষ থেকে নোবেল জয়ী বাঙালিকে ক্লাবের আজীবন সদস্য পদ ও সঙ্গে মোহনবাগানের জার্সিও তুলে দেওয়া হয় তাঁকে। একই সঙ্গে মোহনবাগান ক্লাবকে উপলক্ষ্য করে লেখা বই 'সোনায় লেখা ইতিহাস' তুলে দেওয়া হয় অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়কে। পাশাপাশি মোহনবাগান ক্লাবকে ধন্যবাদ জানান নোবেল জয়ী বাঙালি।

মোহনবাগান ক্লাবের তরফ থেকে সাম্মানিক পেলেও ফুটবল সমর্থক হিসাবে অভিজিৎ বিনায়ক বন্দ্যোপাধ্যায় জন্ম থেকেও ইস্টবেঙ্গল সমর্থক। আর সেই ইস্টবেঙ্গল ক্লাবের তরফ থেকেও সম্মান জানানো হয় অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়কে। ইস্টবেঙ্গল ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ক্লাবের পক্ষ থেকে অভিজিৎ বিনায়ককে একটি স্মারক পাঠিয়ে তাঁকে ক্লাবে আমন্ত্রণ জানান। লাল-হলুদ ক্লাবের অনুষ্ঠানে তাঁকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। একই সঙ্গে তাঁকে আজীবন সদস্য পদ দেওয়ার কথাও জানানো হয় সেই স্মারকে।