নিউজিল্যান্ডের মাটিতে দাপট অব্যহত ভারতীয় ক্রিকেট দলের। বিরাট কোহলির নেতৃত্বাধীন ভারতীয় দলকে সামলাতে হিমশিম খাচ্ছে কিউয়িরা। আজ রবিবার সিরিজের শেষ ম্যাচ খেলতে মাঠে নামছে দুই পক্ষ। মাউন্ট মঙ্গানুইয়ে টি টোয়েন্টি সিরিজের শেষ ম্যাচটি হতে চলেছে। কোহলিদের বর্তমানে পাখির চোখ হোয়াইটওয়াশ। 

শেষ দুটি ম্যাচে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই করে জিততে হয়েছে ভারতীয় দলকে। দুটি ম্যাচই গড়িয়েছিল সুপার ওভার অবধি। দুটি ম্যাচেই ১৯ ওভার অবধি দারুণ ব্যাটিং করে নিউজিল্যান্ড। কিন্তু শেষ ওভারে চাপ সামলাতে না পারায় জেতা ম্যাচ মাঠে ফেলে রেখে আসেন কিউয়িরা। এর সমস্ত কৃতিত্ব যায় ভারতীয় ডেথ বোলারদের। শেষ ওভারে স্বল্প রান সম্বল করেও তারা ম্যাচগুলিকে সুপার ওভার অবধি নিয়ে যান। তৃতীয় ম্যাচের দিন সুপার ওভারে হিরো হয়েছিলেন রোহিত শর্মা। পর পর দুটি ছক্কা মেরে সুপার ওভারে ম্যাচ জিতিয়েছিলেন তিনি।  চতুর্থ ম্যাচে সেই ভূমিকা পালন করেন বিরাট কোহলি। মারকাটারী ইনিংসের বদলে হিসাব করে খেলে দলকে জয় এনে দেন কোহলি। দুদিন-ই  সুপার ওভার আর বাকি ম্যাচেও উল্লেখযোগ্য ভূমিকা পালন করেছিলেন কে এল রাহুল। ব্যাটের পাশাপাশি গ্লাভস হাতে উইকেটের পেছনেও ভালো পারফরম্যান্স করছেন তিনি। 

চতুর্থ ম্যাচের প্রথম একাদশে তিনটি পরিবর্তন করেছিল ভারতীয় দল। রোহিত শর্মার বদলে দলে এসেছিলেন তরুণ ক্রিকেটার সঞ্জু স্যামসন। এছাড়া জাদেজা এবং শামীর পরিবর্তে দলে এসেছিলেন ওয়াশিংটন সুন্দর এবং নভদীপ সাইনি। পঞ্চম ম্যাচের দলেও কিছু পরিবর্তন হতে পারে বলে আশংকা করা হচ্ছে। তার মধ্যেও জিতে ফেরার ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসী ভারতীয় দল। 

শেষ ম্যাচে ভারতীয় ইনিংসের শুরুতে ব্যাটিং বিপর্যয় ঘটে। সেখান থেকে দলের হাল ধরেছিলেন মনীশ পান্ডে। তার অর্ধশতরান ভারতকে ভদ্রস্থ স্কোরে পৌঁছতে সাহায্য করেছিল। ম্যাচের পর সাংবাদিক সম্মেলনে তিনি জানান ৬ নম্বরে ব্যাটিং একটি নতুন অভিজ্ঞতা। সাধারণত আইপিএল কিংবা ঘরোয়া টি টোয়েন্টি লিগে তিনি ৩ বা ৪ নম্বরে ব্যাট করেন। সেখানে দাঁড়িয়ে ৬ নম্বরে ব্যাট করে দলের জয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পেরে খুশি মনীশ। তিনি আরো জানান যে এই মুহুর্তে ভারতের হয়ে ৩ বা ৪ নম্বরে ব্যাট করার সুযোগ পাওয়া সম্ভাবনা নেই। তাই ৬ নম্বরে মানিয়ে নেওয়ার জন্য মানসিক প্রস্তুতি নিয়েছেন তিনি। 

অপরদিকে সুপার ওভারের সমস্যা কাটিয়ে উঠছে পারছে না নিউজিল্যান্ড। এই নিয়ে ষষ্ঠ বার নিউজিল্যান্ড দল সুপার ওভারের সম্মুখীন হলো। কিন্তু এক বারও তারা সুপার ওভার থেকে জয় আদায় করতে পারেনি। আজ টি টোয়েন্টি সিরিজের শেষ ম্যাচ জিতে সম্মান রক্ষা করতে চায় কিউয়িরা।