ভারতের ১২ নম্বর শুটার হিসাবে এবার অলিম্পিকের টিকিট নিশ্চিত করলেন তেজস্বিনী সাওয়ন্ত। বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন হয়েছিলেন আজ থেকে ৯ বছর আগে। তার মাঝে আসেনি অলিম্পিক খেলার যোগ্যতা। এবার সেখানে নিজেকে ফের একবার প্রমান করলেন ভারতীয় শুটার তেজস্বিনী। ৫০ মিটার রাইফেলে মিউনিখে বিশ্বচ্যাম্পিয়ন হয়েছিলেন তেজস্বিনী। তবে তখনও অলিম্পিয়ান হওয়া হয়নি তাঁর। এবার সেই জায়গা থেকে এসে ২০১৯ সালে অলিম্পিয়ান হওয়ার স্বপ্ন পূরণ করার দিকে তেজস্বিনী। নিজের ৩৯ বছর বয়সে টোকিও অলিম্পিকের টিকিট নিশ্চিত করে ফেললেন ভারতীয় এই শুটার। একই সঙ্গে টোকিও অলিম্পিকের যোগ্যতা অর্জন করলেন ঐশইয়ারে তোমার। ছেলেদের বিভাগে ৫০ মিটার রাইফেলে যোগ্যতা অর্জন এই ভারতীয় শুটাররে।

 

ইতিমধ্যে ভারতের হয়ে ১১ জন শুটার যোগ্যতা অর্জন করে ফেলেছিলেন অলিম্পিকের। এবার ভারতের হয়ে ১২ তম শুটার হিসাবে অলিম্পিকে যোগ্যতা পেলেন তেজস্বিনী। বেশ কিছু বছর ধরে অলিম্পিকে খেলার স্বপ্ন থাকলেও সেটা পূরণ হয়নি। তবে এবার সেই স্বপ্ন পূরণ হল ভারতীয় মহিলা শুটারের। মেয়েদের বিভাগে ৫০ মিটার ৩ পজিশন রাইফেল বিভাগে চতুর্থ স্থানে শেষ করে অবশেষে টোকিও ২০২০ সালের অলিম্পিকের যোগ্যতা পেলেন এই মহিলা শাটলার।

আরও পড়ুন, হ্যাটট্রিকের রেকর্ডে এবার রোনাল্ডোর পাশে মেসি, লালিগায় বড় জয় বার্সার

১২০০-এর মধ্যে ১১৭১ পয়েন্ট পেয়ে এই প্রতিযোগিতায় চতুর্থ স্থানে শেষ করেন তেজস্বিনী। অলিম্পিকের যোগ্যতা অর্জন করার পর ভারতীয় এই মহিলা শুটার বলেন, আমার জীবনের একটা লড়াই কিছুটা হলেও শেষ হল। এত বছর ধরে অলিম্পিকের যোগ্যতা অর্জন করার চেষ্টা করেছি। সেটায় অবশেষে আমি সফল। ২০০৮ কোয়ালিফায়ারেও একটুর জন্য হয়নি। ২০১২ সালেও এক পয়েন্টের জন্য যোগ্যতা অর্জন করতে পারিনি। তবে এবার সেটা সম্ভব হয়েছে। নিজের সাধারণ ব্যাপারটা দিয়েই যোগ্যতা অর্জন করতে পেরেছি। এটাই আমার কাছে একটা ভালো দিক।