সরকারের বিভিন্ন স্টেডিয়াম এবং স্পোর্টস কমপ্লেক্স গুলি খোলার সিদ্ধান্তর পরে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা গিয়েছে নানা বিখ্যাত ক্রীড়াবিদদের মধ্যে। কেউ কেউ সরকারের এই সিদ্ধান্ত কে পুরোপুরি ভাবে স্বাগত জানিয়েছেন। অনেকদিন বাড়ি বসে থেকে তারা হাঁপিয়ে উঠেছিলেন। এই সিদ্ধান্তের ফলে তারা হাপ ছেড়ে বেচেঁছেন। আবার কিছু সংখ্যক ক্রীড়াবিদ এই সিদ্ধান্ত নিয়ে সামান্য সন্দিহান বলে জানা গেছে। তারাও বর্তমান পরিস্থিতিতে খারাপ কিছু হতে পারে সেই আশংকায় ভুগছেন। 

আরও পড়ুনঃস্বার্থপর ক্রিকেটার বলায় শেন ওয়ার্নকে পালটা জবাব দিলেন স্টিভ ওয়া

রবিবার দেশে চালু হওয়া চতুর্থ লকডাউন সংক্রান্ত বিশেষ কিছু নিয়ম সামনে আনা হয়েছে। যা এই সকল ক্রীড়াবিদদের দায়িত্ব বাড়িয়েছেন। এরইমধ্যে স্পোর্টস অথরিটি অফ ইন্ডিয়া বা সাই প্রতিটি ক্রীড়ার সাথে জড়িত ক্রীড়াবিদদের ক্ষেত্রে কিছু কিছু বিশেষ নিয়ম। তার ফলে ভাগ হয়ে গিয়েছে ক্রীড়াবিদরা। প্রধান সমস্যা তৈরি হয়েছে কন্টাক্ট নির্ভর খেলা গুলি নিয়ে যেমন বক্সিং, কিক বক্সিং কিংবা কুস্তির মতো খেলাগুলি। 

আরও পড়ুনঃভারতীয় দলকে সুন্দর থেকে কঠিন দলে পরিণত করেছিল সৌরভ,মন্তব্য নাসির হোসেনের

আরও পড়ুনঃক্রিকেট থেকে বিরতি,টিকটক সুপারস্টার হয়ে উঠলেন ডেভিড ওয়ার্নার

একটি সাক্ষাৎকারে কুস্তিগীর পূজা ডান্ডে জানিয়েছেন সতীর্থ ছাড়া ট্রেনিংয়ে ফিরে তাদের ক্রীড়ার ক্ষেত্রে অন্তত কোনও লাভ নেই। এই মুহুর্তে তিনি নিজেও চিন্তায় আছেন করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ নিয়ে তাও জানিয়েছেন। তার মতে মহামারী নির্মূল না হওয়া অবধি তাদের অপেক্ষা করা উচিত। কুস্তিগীর দিব্যা কাকরানও মনে করেন যতদিন না মহামারী নির্মূল হচ্ছে ততদিন অন্তত সকলের অপেক্ষা করা উচিত আর ততদিন বাড়িতেই অনুশীলন চালানো উচিত।