বিশ্ব জুড়ে নিজের মারণ থাবা ক্রমশ চওড়া করছে মারণ কোভিড ১৯ ভাইরাস। চিনের পর করোনা ভাইরাসের প্রভাবে সবথকে বেশি মানুষ প্রাণ হারাচ্ছেন ইউরোপে। ইতালি ও স্পেনের অবস্থা ভয়াবহ। মৃত্যমিছিল বেড়েই চলেছে এই দুই দেশে। মারণ ভাইরাসের থাবা বাড়ছে ক্রীড়া ক্ষেত্রেও। আক্রান্ত হচ্ছে একাধিক প্লেয়ার, কোচ থেকে সাপোর্টিং স্টাফ। এবার কোভিড ১৯-এ বিশ্বের প্রথম সাঁতারু হিসেবে আক্রান্ত হলেন অলিম্পিকে সোনাজয়ী দক্ষিণ আফ্রিকার ক্যামেরন ফান ডেন বার্গ। এই খবর প্রকাশ্যে আসার পরই উদ্বেগ আরও বাড়ছে ক্রীড়া জগতে।

আরও পড়ুনঃকরোনা মোকবিলায় নিজের ৬ মাসের বেতন দিলেন কুস্তিগির বজরং পুনিয়া

সোশাল সাইটে নিজের অভিজ্ঞতার কথা জানিয়ে ফান ডেন বার্গ লিখেছেন,  ‘১৪ দিন ধরে কোভিড ১৯ ভাইরাসে আক্রান্ত। আমার বয়স কম, আমার ফুসফুস এবং হৃদযন্ত্র অনেক মজবুত৷ তারপরেও এই ভাইরাস আমার দেখা সবচেয়ে মারাত্মক ভাইরাস।’ তিনি আরও লেখেন, ‘এই ভাইরাসে আক্রান্ত হলে শরীরে ব্যাপক প্রভাব পড়ে। যদি কোনও অ্যাথলিট এই ভাইরাসে আক্রান্ত হন তাহলে তার শারীরিক ক্ষমতা হ্রাস পায়। এমনকি এতদিন ধরে পরিশ্রম করে তিনি যে শারীরিক সক্ষমতা গড়ে তুলেছিলেন, সেটাও নষ্ট হতে বেশি সময় লাগে না।

আরও পড়ুয়াঃ১২৪ বছরের ইতিহাসে এই প্রথম, অবশেষে করোনা আতঙ্কে স্থগতি হল টোকিও অলিম্পিক

আরও পড়ুয়াঃকরোনা যুদ্ধে জয়, সুস্থ আর্সেনাল কোচ মাইকেল আর্তেতা

২০১২ লন্ডন অলিম্পিকে ১০০ মিটার ব্রেস্টস্ট্রোক দেশকে সোনা এনে দিয়েছিলেন ক্যামেরন ফান ডেন বার্গ।  এছাড়াও ২০১৬ রিও অলিম্পিকে রুপো জিতেছেন দক্ষিণ আফ্রিকার এই সাঁতারু৷ আপাতত কোয়ারেন্টাইনে রয়েছে ফান ডেন বার্গ। চিতিৎসকরা সারাক্ষাণ পর্যবেক্ষণে রেখেছেন তাকে। সুস্থ হওয়ার জন্য যাবতীয় স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলছেন দক্ষিণ আফ্রিকান অ্যাথলিট। অলিম্পিকে সোনাজয়ীর সুস্থতা কামনা করেছেন বিশ্বের বিভিন্ন দেশের অ্যাথলিটরা। দ্রুত সুস্থ হওয়ার বিষয়ে আত্মবিশ্বাসী  ক্যামেরন ফান ডেন বার্গও।