সমগ্র বিশ্বকে গ্রাস করেছে করোনা আতঙ্ক। ক্রীড়া জগতেও ব্যাপক থাবা বসিয়েছে কোভিড ১৯ ভাইরাস। বিশ্ব জুড়ে বিজ্ঞানীরা ব্য়স্ত করোনার প্রতিষোধক আবিষ্কারে। কিন্তু তা এখনও অধরা। কিন্তু এই মারণ ভাইরাসকেও যে হারানো যায় তা প্রমাণ আর্সেনালের কোচ মাইকেল আর্তেতা। করোনা-যুদ্ধে জিতে তিনি ফিরে এসেছেন স্বাভাবিক জীবনে। আগের তুলনায় তিনি অনেক সুস্থ আছেন বলে জানিয়েছেন আর্তেতা। তবে স্প্যানিশ কোচের চিকিৎসা এখনও চলছে।

আরও পড়ুনঃকরোনায় আক্রান্ত ফুটবলার ফেলাইনি,চিনের হাসপাতালে চিকিৎসাধীন বেলজিয়ান তারকা

গত মাসে ইংল্যান্ডে নিজের থাবা বিস্তার করে করোনা ভাইরাস। ইপিএলের প্রথম কোনও ব্যক্তি হিসেবে এই ভাইরাসে সংক্রামিত হন মাইকেল আর্তেতা। সেই খবর প্রকাশ্যে আসার পরেই প্রিমিয়ার লিগের সমস্ত ম্যাচ স্থগিত করার সিদ্ধান্ত নেন প্রিমিয়ার লিগের কর্তারা। আর্তেতার পরেই ইপিএলের একাধিক প্লেয়ার আক্রান্ত হন কোভিড ১৯ ভাইরাসে। সেই তালিকায় নাম রয়েছে চেলসির ক্যালাম-হাডসন-ওডোই-এর। যাঁর শরীরেও করোনাভাইরাস ধরা পড়েছিল। হাডসন আপাতত রয়েছেন চিকিৎসাধীন। গত মাসে ইউরোপা কাপে অলিম্পিয়াকোস ম্যাচের পরেই আর্তেতার শরীরে করোনাভাইরাস ধরা পড়ে। যা নিয়ে তিনি বলেছেন, “সব কিছু খুব দ্রুত ঘটে গিয়েছিল। শরীরটা ভাল লাগছে না বলে আমি ক্লাবকর্তাদের জানাই। তখনই জানতে পারি, অলিম্পিয়াকোস দলের অনেকের শরীরেই করোনাভাইরাস ধরা পড়েছে।আমি আর ঝুঁকি না নিয়ে ছুটি ডাক্তারের কাছে। তার পরে পরীক্ষায় করোনাভাইরাস ধরা পড়ে। আমি কোয়রান্টিনে চলে যাই। এর পরে চিকিৎসকেরা স্বাস্থ্যবিধি সংক্রান্ত যে নির্দেশ দিয়েছেন, তা পালন করেই সুস্থ হয়ে উঠেছি।” তিনি জানিয়েছেন, অসুস্থ থাকার সময় সাধারণ সর্দি-কাশিতে যে ধরনের ওষুধ খেতেন, তাই খেয়েছিলেন এবং ধীরে ধীরে সুস্থ হয়ে উঠেছেন।

আরও পড়ুনঃ১২৪ বছরের ইতিহাসে এই প্রথম, অবশেষে করোনা আতঙ্কে স্থগতি হল টোকিও অলিম্পিক

আরও পড়ুনঃবিদেশে গিয়ে আইসোলেশনে শাকিব আল হাসান, সকলকে সুস্থ ও সচেতন থাকার পরামর্শ

তবে করোনার সঙ্গে মোকাবিলা ও মারণ ভাইরাসকে পরাস্ত করার পর অভিজ্ঞতার কথা জানিয়েছেন আর্সেনাল কোচ। জানিয়েছেন, এত দ্রুত সমস্ত ঘটনা ঘটে গিয়েছিল যে, তিনি পরিস্থিতির সঙ্গে মানিয়ে নিতে সমস্যায় পড়েছিলেন। এক পত্রিকাকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি বলেছেন, “এই মুহূর্তে অনেক সুস্থ রয়েছি। মনে হচ্ছে, আমি সেই সংক্রমণ কাটিয়ে উঠতে পেরেছি।” যোগ করেছেন, “হয়তো আগামী তিন-চার দিনের মধ্যে স্বাভাবিক ভাবে চলাফেরার শক্তি ফিরে পাব।” আর্তেতার সুস্থতার খবর প্রকাশ্যে আসার পরই কিছুটা স্বস্তিতে ফুটবল বিশ্বে। বিগত কয়েক দিনে বিশ্ব জুড়ে একাধিক ক্রীড়া ব্যক্তিত্ব আক্রান্ত হচ্ছিলেন করোনা ভাইরাসে। তারা এখনও সকলেই চিকিৎসাধীন। আর্তেতার লড়াই, করোনা ভাইরাসকে হারানো কথা শুনে অনেকরই মনোবল বাড়বে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।