এবারে সেমিতে পাকিস্তানের মুখোমুখি ভারত। ২০১৮ অনূর্ধ্ব ১৯ বিশ্বকাপের সেমিতেও মুখোমুখি হয়েছিল ভারত এবং পাকিস্তান। পৃথ্বী শা-এর নেতৃত্বাধীন ভারতের কাছে সেবার হারতে হয়েছিল পাকিস্তানকে। সেবার শুভমান গিলের সেঞ্চুরির সৌজন্যে ৫০ ওভারে ২৭২ রান তুলেছিল ভারত। ব্যাট করতে নেমে তাসের ঘরের মতো ভেঙে পড়ে  পাকিস্তান। মাত্র ৬৯ রানে অলআউট হয়ে গিয়েছিল তারা। ২০৩ রানের ব্যবধানে লজ্জার হার হারতে হয় পাকিস্তানকে। এইবার সেই হারের বদলা নিতে মুখিয়ে থাকবে পাকিস্তান। পর পর ম্যাচ জিতে এবং কোয়ার্টারে অস্ট্রেলিয়াকে হারিয়ে আত্মবিশ্বাসী ভারতও। পাকিস্তান বা ভারতের কেউই এখনো টুর্নামেন্টে কোনো ম্যাচ হারেনি। দুই দলই ভালো ছন্দে রয়েছে। মঙ্গলবার একটি উত্তেজক ম্যাচের অপেক্ষায় এখন সারা বিশ্ব।

শেষবার অনূর্ধ্ব ১৯ বিশ্বকাপে পাকিস্তান ভারতকে হারিয়েছিল ২০১০ এ। পাকিস্তানের অধিনায়ক জানিয়েছেন আজ ম্যাচ জিতে ভারতের পর পর তিনবার ফাইনালে যাওয়া আটকাতে আত্মবিশ্বাসী তারা। তিনি আরো জানিয়েছেন এই ম্যাচ ঘিরে মানুষের প্রত্যাশা অনেক বেশি থাকে। তাদের দলের খেলোয়াড়রা শারীরিক এবং মানসিক দুভাবেই এই চাপ সামলাতে তৈরি। ম্যাচ জিততে গেলে যে নিজেদের কে একদম নিখুঁত ক্রিকেট খেলতে হবে তা মানছেন ভারতীয় অধিনায়ক। ভুলের কোনো জায়গা নেই এই ম্যাচে জানিয়েছেন পাক অধিনায়ক। এশিয়া কাপে ভারতের বিরুদ্ধে খেলতে হয়েছিল তাদের। ফলে ভারতের শক্তি এবং দুর্বলতা সম্পর্কে তারা ওয়াকিবহাল বলে জানিয়েছেন তিনি।

অপরদিকে ভারত এই টুর্নামেন্টে ধারাবাহিক ভাবে ভালো খেলে আসছে। গ্রূপে স্টেজ থেকে কোয়ার্টার ফাইনাল, সব ম্যাচে একপেশে ভাবে জিতেছে ভারতীয় অনূর্ধ্ব ১৯ দল। প্রথম ম্যাচে শ্রীলঙ্কাকে ৯০ রানে হারান তারা। এরপর জাপানের বিরুদ্ধে নেমে তাদের করা ৪১ রান তুলতে কোনো সমস্যা হয়নি তাদের। ২৭১ বল বাকি থাকতে ম্যাচ জিতে নেন তারা। তারপর বৃষ্টিবিঘ্নিত ম্যাচে নিউজিল্যান্ড অনূর্ধ্ব ১৯ দলকে ৪৪ রানে হারান তারা। কোয়ার্টার ফাইনালে অস্ট্রেলিয়ার মতো দলকে ৭৪ রানের ব্যবধানে হারিয়ে দেয় ভারত। আজ পাকিস্তানের বিরুদ্ধে কেমন খেলেন তারা সেদিকে নজর থাকবে গোটা দেশের।