করোনা ভাইরাসের থাবা ক্রমশ গ্রাস করছে গোটা পৃথিবীকে। লাফিয়ে বাড়ছে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা। এখনও পর্যন্ত এই মারণ ভাইরাস বিশ্বজুড়ে প্রাণ কেড়েছে ৬ হাজারের বেশি মানুষের। মৃতের সংখ্যা সব থেকে বেশি চিন ও ইতালিতে। করোনার কোপে চিনে এখনও পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে তিন হাজারের বেশি মানুষের। ইতাালিতে মৃতের সংখ্যা হাজার ছাড়িয়েছে। ক্রীড়া বিশ্বও আতঙ্কের সঞ্চার করেছে করোনা ভাইরাস। আক্রান্ত হয়েছেন বেশ কয়েক জন ক্রীড়া ব্যক্তিত্ব। সংক্রমণ থেকে বাঁচতে স্বেচ্ছায় আইসোলেশনে গেছেন একাধিক ক্রীড়াবিদ ও দল। সেই তালিকায় রয়েছে ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোও। এছাড়া বার্সেলোনা, রিয়াল মাদ্রিদ, ম্যান ইউ সহ একাধিক দল গিয়েছেন স্বেচ্ছা আইসোলেশনে। এবার সেই তালিকায় নাম লেখালেন বিশ্বজয়ী দাবাড়ু বিশ্বনাথন আনন্দ। জার্মানিতে স্বেচ্ছায় আইসোলেশনে রয়েছেন তিনি।

আরও পড়ুনঃকিবু না হাবাস, পরের মরসুমে কে ধরবেন পাল তোলা নৌকার হাল

আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্টের জন্য বছরের বেশিরভাগ সময় স্পেনে থাকেন বিশ্বনাথন আনন্দ। মাঝে যখন আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্ট থাকে না তখন দেশে ফেরেন তিনি। এবারও আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্টের জন্য স্পেন হয়ে জার্মানিতে গিয়েছিলেন বিশ্বনাথন। কিন্তু সেখানে করোনা সংক্রমণের জেরে আটকে পড়েন তিনি। ফলে আপাাতত আর দেশে ফেরা সম্ভব হচ্ছে না এই খ্যাতনামা দাবাডুর। সংক্রমণেকর জন্য আতঙ্কেও ভুগছিলেন তিনি। তাই সংক্রমণ থেকে বাঁচতে নিজেকে আইসোলেশনে রেখেছেন বিশ্বনাথন আনন্দ। সেখানে ডাক্তারের পরামর্শ মত চলছেন তিনি। 

আরও পড়ুনঃঅবশেষে নবান্নের সিদ্ধান্তই মানল প্রোটিয়ারা, রাজারহাটের হোটেলই থাকবে দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেট দল

আরও পড়ুনঃমোতার্জাকে বিশাল সার্টিফিকেট তামিমের, আর কী বললেন বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের নতুন অধিনায়ক

করোনা ভাইরাসের সংক্রমণকে ইতিমধ্যেই বিশ্ব মহামারি ঘোষণা করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বা হু। এখনও পর্যন্ত বার করা যায়নি এই মারণ রোগের প্রতিষেধক। ক্রীড়া ব্যক্তিত্বদের মধ্যে  করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন জুভেন্টাসের ড্যানিয়েল রুগানি ও পাওলো দিবালা ছাড়াও করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন আর্সেনাল কোচ মাইকেল আর্তেতা,  চেলসির উইঙ্গার ক্যালাম হাডসন-ওডোই, জার্মান ক্লাব হ্যানোভারের ডিফেন্ডার টিমো হুর্বাস। এবার আতঙ্কের কারণে স্বেচ্ছা আইসোলেশনে গেলেন বিশ্বনাথন আনন্দ। ফলে করোনা যেবাবে থাবা বসাচ্ছে তাতে বিশ্ব জুড়ে ক্রমশ বাড়ছে উগ্বেগ ও আতঙ্ক।