পর্যটনের নতুন ঠিকানা, উদ্বোধনের অপেক্ষা বিশ্বের সবথেকে লম্বা শিবমূর্তি - যা রাতের অন্ধকারেও দেখা যায়

| Oct 28 2022, 08:14 PM IST

পর্যটনের নতুন ঠিকানা, উদ্বোধনের অপেক্ষা বিশ্বের সবথেকে লম্বা শিবমূর্তি - যা রাতের অন্ধকারেও দেখা যায়
পর্যটনের নতুন ঠিকানা, উদ্বোধনের অপেক্ষা বিশ্বের সবথেকে লম্বা শিবমূর্তি - যা রাতের অন্ধকারেও দেখা যায়
Share this Article
  • FB
  • TW
  • Linkdin
  • Email

সংক্ষিপ্ত

বিশ্বের সবথেকে লম্বা শিব মূর্তি উদ্বোধনের প্রতীক্ষায় রয়েছে। শনিবার হবে উদ্বোধন। জানুন এই মূর্তির বৈশিষ্ঠ্য। 
 

রাজস্থানের রাজসমন্দ জেলার নাথদ্বার শহরে তৈরি হয়েছে ৩৬৯ ফুট লম্বা শিব মূর্তি বিশ্বাস স্বরূপম। শনিবার এই মূর্তি উদ্বোধন করা হবে। দাবি করা হয়েছে, এটি বিশ্বের সবথেকে বড় শিবমূর্তি। মুখ্যমন্ত্রী অশোক গেহলট, স্পিকার সিপি জোশী উপস্থিতিতে এটির উদ্বোধন করলেন পদ্মম সংস্থার প্রধান। উদয়পুর থেকে ৪৫ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত এই বিশালাকার শিব মূর্তি। 

সংস্থার স্ট্রাস্টি ও মিরাজ গ্রুপের চেয়ারম্যান মদন পালিওয়াল বলেছেন মূর্তিটি উদ্বোধনের পর  ২৯ অক্টোবর থেকে ৬ নভেম্বর ৯ দিন ধরে সংশ্লিষ্ট এলাকায় ধর্মীয় অনুষ্ঠান, আধ্যাত্মিক ও সংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হবে। ধর্ম প্রচারক মোরারি বাপুও ৯ দিন ধরে মূর্তি সংলগ্ন এলাকায় রাম-কথা পাঠ করবেন। মূর্তি উন্মোচন হতে পারে তাঁরই হাতে। পালিওয়াল জানিয়েছেন, শ্রীনাথজি শহরে স্থাপিত ভগবান শিবের মূর্তিটি পর্যটক ও তীর্থ যাত্রীদের আকর্ষণের অন্যতম কেন্দ্রবিন্দু হবে। ৫১ বিঘা জমি ওপর একটি পাহাড়ের চূড়ায় মূর্তিটি তৈরি করা হয়েছে। এটি প্রায় ২০ কিলোমিটার দূর থেকে দেখা যায়। মূর্তিটি এমনভাবে তৈরি করা হয়েছে এটি রাতেও স্পষ্ট দেখা যায়।  

Subscribe to get breaking news alerts

সংস্থার পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে, এটি বিশ্বের সবথেকে লম্বা শিবমূর্তি। ভক্তদের জন্য সিঁড়ি ও লিফটের ব্যবস্থা রয়েছে। ভিরতে যাওয়ারও ব্যবস্থা রয়েছে। সংস্থার পক্ষ থেকে বলা হয়েছে এটি নির্মাণের জন্য তিন হাজার টন ইস্পাত , লোহা, আড়াই লক্ষ ঘনটন কংক্রিট, বালি ব্যবহার করা হয়েছে। তৈরি করতে সময় লেগেছেন ১০ বছর। এটির ভিত্তি প্রস্তর স্থাপনের সময়ও অশোক গেহলট মুখ্যমন্ত্রী ছিলেন। উদ্বোধনের সময়ও তিনিই রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রী। তিনি জানিয়েছেন এই মূর্তিটি এতটাই শক্তপোক্ত যে ২৫০ কিলোমিটার বেগে ঝড় হলেও মূর্তিটির কোনও ক্ষতি হবে না। মূর্তিটি ডিজাইন করা হয়েছে অস্ট্রেলিয়ার উইন্ড টানেল টেস্ট থেকে। 

সংস্থার পক্ষ থেকে জানান হয়েছে আগামী দিনে মূর্তির চারপাশে বেশ কিছু বিনোদনমূলক ক্রীড়ার ব্যবস্থা করা হবে। বাঞ্জি জাম্পিং, জিপ লাইন, গো-কার্টের ব্যবস্থা করা হবে। ফু় কোর্ট, অ্যাডভেঞ্চার পার্ক আর জঙ্গল ক্যাফে থাকবে। আগামী দিনে পর্যটকদের আনা গোনা বাড়বে বলেও মনে করেছে মনে করছে কর্তৃপক্ষ। 

আরও পড়ুনঃ

পর্নোগ্রাফি একটি পাপ- এর সঙ্গে যুক্ত যাজক ও সন্ন্যাসীরাও, বিস্ফোরক মন্তব্য পোপ ফ্রান্সিসের

দেনা পরিশোধের জন্য মহিলাদের বিক্রি, খতিয়ে দেখতে রাজস্থানে মহিলা কমিশনের প্রতিনিধি দল

ইমরানের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা ISI-র, সাংবাদিক বৈঠক করে বোমা ফাটালেন গোয়েন্দা প্রধান