রোনা আতঙ্কে কাত বিশ্বের সবচেয়ে শক্তিধর দেশও। কোভিড-১৯ ভাইরাসের কারণে দেশজুড়ে জরুরী অবস্থা ঘোষণা করলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। পাশাপাশি ফেডারেল ফান্ড থেকে করোনা মোকাবিলায় ৫০ বিলিয়ন মার্কিন ডলার জরুরী সাহায্য তহবিলে দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। 

ভাইরাসকে প্রতিহত করার জন্য মার্কিন সরকার যাতে সর্বশক্তি দিয়ে ঝাঁপাতে পারে সেই কারণেই এই জরুরী অবস্থা ঘোষণা বলে জানিয়েছেন ট্রাম্প। শুক্রবার হোয়াইট হাউসে সাংবাদিক সম্মেলন করেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। সেখানেই একথা জানান তিনি। 

আরও পড়ুন: দু'জনে সংসার করেছেন ৬০ বছর, করোনা আক্রান্ত হয়ে একসঙ্গেই মৃত্যু দম্পতির

আগামী ২ মাসের মধ্যে মারণ ভাইরাস করোনাকে দেশ থেকে সম্পূর্ণ ভাবে নির্মূল করা হবে বলে আশ্বস্ত করেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। ট্রাম্প বলেন, “আমাদের মানুষ যে চিকিৎসা পাওয়ার অধিকারী, সেটা তাঁদের দিতেই হবে। এই পথে যাবতীয় বাধা আমরা দূর করব। তার জন্য যাবতীয় সম্পদ ব্যবহার করা হবে।”

 

 

সাংবাদিক বৈঠকে ট্রাম্প বলেন, 'আমি সরকারিভাবে জাতীয় জরুরি অবস্থা ঘোষণা করছি। আগামী ৮ সপ্তাহ খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আমাদের অনেক কিছু শিখতে হবে। সেইসঙ্গে এই ভাইরাসকে আমাদের কোণঠাসা করতে হবে।' যে কোনও জরুরি পরিস্থিতি মোকাবিলায় প্রস্তুত থাকার জন্য আমেরিকার প্রতিটি হাসপাতালকে নির্দেশ দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট।

আরও পড়ুন: চিন নয় মহামারির কেন্দ্রস্থল এখন ইউরোপ, ঘোষণা হু'র, শূণ্যর নিচে আর্থিক বৃদ্ধি নামার আশঙ্কা

বর্তমানে মার্কিন মুলুকে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা দেড়  হাজার ছাড়িয়ে গেছে। কোভিড-১৯ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃতের সংখ্যা পৌঁছেছে ৪০। আগামী কয়েক সপ্তাহে আমেরিকায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা কয়েক গুণ বৃদ্ধি পেতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অফ অ্যালার্জি অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিজেস-এর ডিরেক্টর ডাক্তার অ্যান্টনি ফউসি।রোগ ছড়িয়ে পড়া রোধ করতে আগেই মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের একাধিক অঙ্গরাজ্য জনসমাবেশ, খেলাধুলা ও স্কুল বন্ধ করার নির্দেশ দিয়েছিল।