ক্রমেই মানুষ পৃথিবীর গণ্ডি ছাড়িয়ে পারি জমাচ্ছে মহাকাশে, আর অপরাধ শুধু এই পৃথিবীতেই পড়ে থাকবে, তাও কি হয়? মানুষের পিছন পিছনই অপরাধও এইবার ছাড়ালো পৃথিবীর সীমানা। উঠল মহাকাশে সংঘটিত প্রথম অপরাধের অভিযোগ। যার ভিত্তিতে তদন্তে নেমেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মহাকাশ গবেষণা কেন্দ্র নাসা।

ছয় মাসের জন্য আন্তর্জাতিক স্পেস স্টেশনে নিযুক্ত ছিলেন নভোশ্চর অ্যানে ম্যাকক্লেইন। সেই সময়ই তিনি তাঁর প্রাক্তন স্ত্রীর পরিচয় নকল করে তাঁর ব্যক্তিগত আর্থিক নথি ঘাঁটাঘাঁটি করেছেন বলে অভিযোগ। অ্যানের বিবাহ বিচ্ছিন্না স্ত্রী সামার ওয়ার্ডেন, ফেডেরাল ট্রেড কমিশনে দাবি করেছেন, আন্তর্জাতিক স্পেস স্টেশনে থাকাকালীন অ্যানে তাঁর অনুমতি ছাড়া তাঁ ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট ব্যবহার করেছেন। এর সঙ্গে সঙ্গে সামারের পরিবারের পক্ষ থেকে নাসার ইন্সপেক্টর জেনারেলের অফিসেও অভিযোগ জানানো হয়েছে।

আরও পড়ুন - চন্দ্রযানের পিছুপিছু এবার চাঁদের দক্ষিণ মেরুতে নাসা, ২০২৪-এ পা রাখবেন মহিলা নভোশ্চর

আরও পড়ুন - টাইটানে এবার প্রাণের খোঁজে নাসা, দেখুন টেক টুডে

আরও পড়ুন - মহাকাশে বাহুবলী ভারত, তুলোধনা করল চটে লাল নাসা

আরো পড়ুন - শিশুদের মহাকাশ শিক্ষায় হাত মেলাল মাইক্রোসফট ও নাসা, দেখুন টেক আপডেট

অ্যানের আইনজীবীর অবশ্য দাবি তাঁর ক্লায়েন্ট কোনও অপরাধ করেননি। বরাবরই তাঁদের যৌধ আর্থিক অবস্থা দেখভাল করতেন অ্যানে, এই ক্ষেত্রেও তাই করেছেন। অ্যানে ম্যাককেইন নিজেও যাবতীয় অভিযোগ অস্বীকার করেছএন। ছোট্ট বিবৃতিতে তিনি জানিয়েছেন,অভিযোগের মধ্য়ে কোনও সত্য নেই। তাঁর পাল্টা দাবি সামারের সঙ্গে তাঁর বিচ্ছেদ খুবই যন্ত্রনাদায়ক পরিস্থিতির মধ্য দিয়ে ঘটছে। তারই অংশ এই অভিযোগ। দুর্ভাগ্যবশতঃ তা এখন সংবাদমাধ্য়মে উঠে এসেছে। তদন্ত প্রক্রিয়ায় তাঁর আস্থা আছে। তদ্ত শেষ হলেই তিনি যা বলার বলবেন।

গত জুন মাসে আন্তর্জাতিক স্পেস স্টেশন থেকে পৃথিবীতে ফিরেছেন অ্যানে। এর আগে নাসা প্রথমবার শুধু দুই মহিলা নভোশ্চরের স্পেস ওয়াকের পরিকল্পনা করেছিল। বাছাই দুইজনের মধ্যে একজন ছিলেন অ্যানে। কিন্তু পরে, গত মার্চ মাসে নাসা জানায় উপযুক্ত মাপের স্পেস স্যুট না থাকায় এই পরিকল্পনা বাতিল করা হচ্ছে। তাতে লিঙ্গ বৈষম্য়ের অভিযোগ উঠেছিল নাসার বিরুদ্ধে। সেই সময়ই প্রথম সংবাদ শিরোনামে উঠে এসেছিলেন অ্যানে। পৃথিবীতে কে প্রথম অপরাধ করেছিল, তা জানা নেই, কিন্তু অ্য়ানের বিরুদ্ধে অভিযোগ যদি সত্যি প্রমাণিত হয়, তাহলে তিনিই হবেন মহাকাশে অপরাধ করা প্রথম মানুষ।