রবিবার ভোরে বাগদাদে মার্কিন-ইরাক জোট বাহিনীর সামরিক ঘাঁটিতে ফের রকেট হানা হল। ঘাঁটিতে বেশ কয়েকটি বিস্ফোরণ ঘটেছে বলে জানিয়েছেন একটি মার্কিন সামরিক কর্মকর্তা। তবে এই হামলায় কেউ হতাহত বা কোনও উল্লেখযোগ্য ক্ষতি হয়েছে কিনা তা এখনই প্রকাশ করতে চাননি ওই কর্মকর্তা।

গত একমাস-এর বেশি সময় ধরে ইরাকে কখনও মার্কিন ঘাঁটিতে আবার কখনও মার্কিন দূতাবাসে রকেট হামলা হয়েছে। ওয়াশিংটন সরাসরি এই হামলাগুলির পিছনে ইরান-সমর্থিত জঙ্গিদের দায়ী করেছে। গত ১৩ ফেব্রুয়ারি মার্কিন হানায় নিহত ইরানের জেনারেল কাসেম সোলেমানি-র মৃত্যুর ৪০ তম দিবস উপলক্ষে একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছিল ইরানে। সেখানে মেজর জেনারেল হোসেইন সালামি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও ইসরাইল-কে সতর্ক করে বলেছিলেন, তারা 'সামান্যতম ভুল' করলেই দুই দেশেই আঘাত হামবে ইরান।

গত ৩ জানুয়ারি ইরাক-এর রাজধানী বাগদাদে মার্কিন ড্রোন হামলায় নিহত হন ইরাকের কাদস বাহিনীর প্রধান জেনারেল সোলেমানি। ইরান-এর বাহিরে সামরিক অভিযান পরিচালনা করে এই কাদস বাহিনীই। তার সঙ্গে হত্যা করা হয় ইরাকি জঙ্গি নেতা আবু মাহদি আল-মুহান্দিস'কেও। সোলেমানির মৃত্যুর পর থেকে ইরান-মার্কিন উত্তেজনা আরও বেড়েছে। দুই পক্ষ থেকেই একাধিক হামলা চালানো হয়েছে। অনেকে এই দ্বন্দ্বকে কেন্দ্র করে তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধ লাগার আশঙ্কাও করেছেন।


এটি ব্রেকিং নিউজ, বিস্তারিত আসছে...