ধূপগুড়িতে দুর্ঘটনায় মর্মান্তিক ঘা এখনও শুকোয়নি। এই অবস্থায় কুয়াশার জেরে রাজ্য সড়কে দৃশ্যমানতা কম থাকায় বড়সড় দুর্ঘটনার কবলে পড়ল যাত্রী বোঝাই বাস। ঘটনাটি ঘটেছে উত্তর দিনাজপুরের রায়গঞ্জের। বুধবার সকালে দৃশ্যমানতা কম থাকায় যাত্রী বোঝাই বাসে ধাক্কা মারে একটি গাড়ি। নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তার ধারে উল্টে যায়টি বাসটি। আহতদের উদ্ধারে ঘটনাস্থলে পৌঁছায় পুলিশ।

আরও পড়ুন-প্রকট হয়েছে মুর্শিদাবাদে তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব, পরিস্থিতি সামাল দিতে মুখ্যমন্ত্রীর রুদ্ধদ্বার বৈঠক

জানাগেছে, যাত্রীবোঝাই বেসরকারি বাস আর টাটা সুমো গাড়ির মুখোমুখি সংঘর্ষে আহত হয়েছেন কমপক্ষে ১৫ জন যাত্রী। বৃহস্পতিবার ঘটনাটি ঘটেছে হেমতাবাদ থানার মহীপুর এলাকার রায়গঞ্জ-বালুরঘাট ১০ নম্বর রাজ্য সড়কে।  স্থানীয় বাসিন্দারা আহতদের উদ্ধার করে হেমতাবাদ ব্লক স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে যায়। বেশ কয়েকজনকে প্রাথমিক চিকিৎসার পর ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। দুর্ঘটনাস্থলে পৌঁছায় হেমতাবাদ থানার পুলিশ।  

আরও পড়ুন-ক্ষমতা দখলের লড়াইয়ে মমতা বনাম বিজেপি, নাকি নন্দীগ্রামে শুভেন্দুর প্রেস্টিজ ফাইট

স্থানীয় সূত্রে খবর,  ঘন কুয়াশা কারণে দৃশ্যমানতা কম ছিল রাস্তায়। রায়গঞ্জ থেকে যাত্রী বোঝাই একটি বেসরকারি বাস বালুরঘাটের দিকে যাচ্ছিল। উল্টোদিক থেকে রায়গঞ্জের দিকে আসছিল একটি টাটা সুমো গাড়ি। হেমতাবাদের মহীপুর এলাকায় ১০ নম্বর রাজ্য সড়কে দুটি গাড়ির মধ্যে মুখোমুখি সংঘর্ষ ঘটলে বাসটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তার ধারে থাকা নয়নজুলিতে পড়ে যায়।  সংঘর্ষে দুটি গাড়ির মোট ১৫ জন আহত হন। আহতদের স্থানীয় বাসিন্দারা উদ্ধার করে হেমতাবাদ ব্লক স্বাস্থ্যকেন্দ্রে ভর্তি করেন। ঘটনাস্থলে আসে হেমতাবাদ থানার পুলিশ। পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে।