কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের সফর প্রথম দিনের সভা ছিল মেদিনীপুরে। সেই সভাতেই প্রত্যাশিত মতই তৃণমূলে যোগদান করলেন একঝাঁক তৃণমূল বিধায়ক ও সাংসদ। জল্পনার অবসান ঘটিয়ে বিজেপিতে যোগদান করলেন শুভেন্দু অধিকারীও। দল বদলের পরই তৃণমূল ও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে রীতিমত হুঙ্কার দিয়েছেন শুভেন্দু। শুভেন্দুকে পেয়েই অমিত শাহ জানালেন, তৃণমূলে দিদি ছাড়া আর কেউ থাকবে না। এবার বাংলায় বিজেপির সরকার।

আরও পড়ুন-বিজেপিতে শুভেন্দু অধিকারী, মেদিনীপুরে প্রথম সভা থেকে তৃণমূলের বিরুদ্ধে হুঙ্কার

শুভেন্দুর পরই মেদিনীপুরের সভায় বক্তব্য রাখেন অমিত শাহ। তিনি বলেন, ''বামফ্রন্টকে ৩৪ বছরের সুযোগ দিয়েছে। তৃণমূলকে ১০ বছর। আমাদের ৫ বছর সময় দিন। বাংলায় সোনার বাংলা গড়ব''। এরপরই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে নিশানা করে অমিত শাহ বলেন, ''কত মানুষকে মারবেন? গোটা বাংলা আপনার বিরুদ্ধে দাঁড়িয়েছে। আমাদের বহু কর্মীকে খুন করেছেন আপনি। আপনাকে সরাতে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ হয়েছে বাংলার মানুষ''। মন্তব্য অমিত শাহের।

আরও পড়ুন-'ক্ষুদিরাম শুধু বাংলার নয়, ভারতেরও', শহিদ ক্ষুদিরাম বসুকে শ্রদ্ধাজ্ঞাপন করে বললেন অমিত শাহ

এরপরই, মুখ্যমন্ত্রীর ভাইপো অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রসঙ্গ তোলেন অমিত। শুভেন্দু তাঁকে 'তোলাবাজ ভাইপো' বলে কটাক্ষ করেছিলেন। এবার অভিষেককে নিশানা করে অমিত শাহ বলেন, ''দিদি ভাবছেন ভাইপোকে মুখ্যমন্ত্রী করবেন। ভোট আসার আগেই তৃণমূলে দিদি একাই থাকবেন। আর কেউ থাকবে না। বাংলায় সরকার গড়বে বিজেপি। ২০০-র বেশি আসন পাবে''। একইসঙ্গে ডায়মন্ড হারবারে জেপি নাড্ডার গাড়িতে হামলার প্রসঙ্গ তোলেন শাহ। বলেন, ''আমাদের পার্টি নেতা জেপি নাড্ডা এই রাজ্যে এসেছিলেন। তাঁর গাড়িতে পাথর ছুঁড়ে হামলা করা হয়েছে। আপি কি মনে করেন, এর ফলে আপনি জনপ্রিয়তা পাবেন''। মন্তব্য অমিত শাহের।