গরু পাচার কয়লা পাচার নিয়ে বাবুলের বিতর্কিত মন্তব্যে। ৩১ ডিসেম্বর করা বাবুলের সেই মন্তব্যের তীব্র বিরোধিতা করলেন তৃণমূল সাংসদ অভিষেক। বাবুলকে ক্ষমা চাইতে হবে এই মর্মে তাঁকে আইনি নোটিস পাঠিয়েছেন তিনি। আইনজীবী মারফত ৭২ ঘণ্টার মধ্যে ক্ষমা চাওয়ার কথা নোটিসে বলেছেন অভিষেক।

আরও পড়ুন-'চানক্য'-'পাণিনি'র মত মমতার শাসননীতি, মুখ্যমন্ত্রীর প্রশংসায় পঞ্চমুখ তৃণমূল সাংসদ

অভিষেকের আইনি নোটিসে আইনজীবী সঞ্জয় বসুর মাধ্যমে তিনি জানিয়েছেন, ৩১ ডিসেম্বর তাঁর বিরুদ্ধে বাবুলের করা মন্তব্য ভিত্তিহীন এবং অপমানজনক। এই বিতর্কিত মন্তব্যের জন্য অবিলম্বে বাবুলের ক্ষমা চাওয়া উচিত। নোটিসে অভিষেক বলেছেন, ''আগামী ৭২ ঘণ্টার মধ্যে বাবুল সুপ্রিয়কে তাঁর মন্তব্য প্রত্যাহার করতে হবে''। যদি তা না হয় বাবুলের বিরুদ্ধে মানহানির মামলা করতে চলেছেন অভিষেক।

আরও পড়ুন-আচমকা রাজভবনে গেলেন মুখ্যমন্ত্রী, রাজ্যপালের সঙ্গে ঘণ্টাখানেক আলোচনা করলেন মমতা

৩১ ডিসেম্বর সংবাদ মাধ্যমের সামনে অভিষেকের নাম করে বাবুল বলেছিলেন, ''ভাইপো আবার বলেন যে, তাঁর নাম আর কেউ নিতে পারবেন না। আমি বলছি, ভাইপোর নাম হল অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। কলকাতায় ভাইপো যে কোটি টাকার বাড়ি বানিয়েছেন। তা কয়লা ও গরু পাচারের টাকা দিয়ে তৈরী। আমি নাম নিয়ে বলছি, অভিষেক বন্দ্যোপাধ্য়ায় কয়লা পাতার-গরু পাচারে যুক্ত। সেখান থেকে তিনি কাটমানি নেন''।