ভোটের মুখে বিজেপি নেতা বাবু মাস্টারের উপর হামলায় সরগরম রাজ্য়-রাজনীতি। ফিরোজ কামাল গাজি ওরফে বাবু মাস্টারের উপর হামলায় বিজেপির অভিযোগের তীর তৃণমূলের দিকে। তবে তিনি এই মুহূর্তে বিপদ মুক্ত রয়েছেন। তাঁকে ইতিমধ্যেই হাসপাতালে দেখতে গিয়েছেন শুভেন্দু সহ বিজেপির শীর্ষ নের্তৃত্বরা।

আরও পড়ুন, সাগর থেকে শাহ-র রথযাত্রার সূচনা, পাল্লা দিয়ে ময়দানে 'দিদির দূত', 'ভূত' বলে কটাক্ষ সুজনের  

বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিংয়ের দাবি, বাবু মাস্টারের বিজেপিতে যোগ দেওয়ার পরই তাঁর উপর হামলার পরিকল্পনা নেওয়া হয়। পুলিশকে দিয়ে ভয় দেখানো হচ্ছিল বাবু মাস্টারকে। জ্য়োতিপ্রিয় মল্লিক তাঁকে নানাভাবে হুমকি দিচ্ছিলেন। গতকালের এই হামলা হতে পারে জ্য়োতিপ্রিয় মল্লিকই করিয়েছেন বলে অভিযোগ তুলেছেন অর্জুন সিং। যদিও এই অভিযোগ খারিজ করে দিয়েছেন তৃণমূলের উত্তর ২৪ পরগণার জেলা সভাপতি মন্ত্রী জ্য়োতিপ্রিয় মল্লিক। জ্য়োতিপ্রিয় মল্লিক পাল্টা বলেছেন, এটা নব্য বিজেপির সঙ্গে পুরোনো বিজেপির লড়ায়ের জের। দীর্ঘদিন ধরেই বাবু মাস্টারের অনেক শত্রু রয়েছে। একটা সময় সিপিএমের গৌতম দেবের ডান হাত ছিলেন বাবু মাস্টার। তখন থেকেই তাঁর অনেক শত্রু।

আরও পড়ুন, Election Live Update- ফেব্রুয়ারিতেই ফের রাজ্যে আসছেন মোদী-শাহ, তার আগেই ময়দানে নামল 'দিদির দূত'  


প্রসঙ্গত, সম্প্রতি বিজেপিতে যোগদান করেন ফিরোজ কালাম গাজি ওরফে বাবু মাস্টার। শনিবার বসিরহাটে সাংগঠনিক বৈঠক সের কলকাতা যাচ্ছিলেন তিনি। মিনাখাঁ থানার কাছে লাউহাটি মোড় এলাকায় পৌঁছতেই তাঁর গাড়ি লক্ষ্য করে গুলি চালায় দুষ্কৃতিরা। বোমাবাজিও করা হয় বলেই অভিযোগ। এরপরেই গুরুতর জখম হন বাবু মাস্টার। প্রথমে স্থানীয় স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তির পর কলকাতার হাসপাতালে তাঁকে স্থানান্ত করা হয়। তবে তিনি এই মুহূর্তে বিপদ মুক্ত রয়েছেন। তাঁকে ইতিমধ্যেই হাসপাতালে দেখতে গিয়েছেন শুভেন্দু সহ বিজেপির শীর্ষ নের্তৃত্বরা।