ভোট প্রচারে পশ্চিম মেদিনীপুরে বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা। ঘাটালে একটি বর্ণাঢ্য রোডশো-তে অংশ গ্রহণ করেছিলেন তিনি। আর সেই জনসভা থেকেই একাধিক বিষয় নিয়ে নিশানা করেন তৃণমূল সুপ্রিম মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে। এই রোড শো-তে যেমন দলীয় কর্মী সমর্থক আর অনুগামীরা নাড্ডাকে আক্রমণাত্মক ভঙ্গিতে দেখলেন তেমনই তাঁরা দেখলেন তাঁর মানবিক মুখ। 

ঘাটালে নাড্ডার রোডশোতে প্রচুর মানুষ উপস্থিত ছিলেন। সেই সময় প্রচুর মানুষ জয় শ্রীরাম স্লোগান দিচ্ছিলেন। বক্তব্য রাখার সময় নাড্ডা দেখেন একটি অ্যাম্বুলেন্স রোডশো-এর কারণে আটকে পড়েছে। তারপরই নাড্ডা নিজেই উদ্যোগ নেন। বক্তব্য থামিয়ে অ্যাম্বুলেন্সটিকে যাওয়ার রাস্তা করে দেন। তিনি অ্যাম্বুলেন্সটি যাওয়ার রাস্তা করে দেওয়ার জন্য অনুগামীদের কাছে আবেদন জানান। বলেন, কেউ যেন অ্যাম্বুলেন্সের পথ না আটকায়। ভিড় অতিক্রম করে অ্যাম্বুলেন্সটি দ্রুততার সঙ্গে চলে যায়। দলীয় অনুগামীরা এই জন্য তাঁকে সাধুবাদ জানান। 

মেদিনীপুরের ঘাটালের জনসভা থেকে নাড্ডা বলেন, এই রাজ্যে তোলাবাজ মুক্ত সরকার গঠন করতে হবে। উপযুক্ত জবাব দিতে হবে পিসি আর ভাইপোকে। আগামী দিনে বিজেপি দুর্ণীতিমুক্ত , সিন্ডিকেটমুক্ত বাংলা গঠন করবে। কাটমানি নিয়ে বলতে গিয়ে নাড্ডা বলেন এটা কখনই বাংলার সংস্কৃতি নয়। বিজেপি ক্ষমতায় এলে কাটমানি নেওয়া বন্ধ হবে বলেও জানিয়েছেন তিনি। আগামী ২৭ মার্চ প্রথম দফায় এই জঙ্গলমহলের ৩০টি কেন্দ্রে ভোট গ্রহণ হবে। তার মাত্র চার দিন আগেই পশ্চিম মেদিনীপুরসহ বিস্তীর্ণ এলাকায় নীবিড় প্রচার চালাচ্ছে গেরুয়া শিবির। দলীয় কর্মী ও অনুগামীদের উৎসাহিত করতে কোনও রকম ত্রুটি রাখছেন না শীর্ষ নেতৃত্বও। 

১৩ আসনের প্রার্থী তালিকা ঘোষণা বিজেপির, 'এমএলএ ফাটাকেষ্ট'র নাম না থাকলেও রয়েছে বড় চমক ..

ঋণের ওপর পুরো সুদ মকুব সম্ভব নয়, লকডাউন পর্বে ঋণ মোরেটরিয়াম নিয়ে রায় সুপ্রিম কোর্টের ..
ভোট প্রচারে এদিন বাংলায় ছিলেন বিজেপির গুরুত্বপূর্ণ নেতা তথা কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। তিনি দক্ষিণ ২৪  পরগনার গোসাবায় জনসভা করেন। সেখান থেকেও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও তৃণমূলের বিরুদ্ধে তোপ দাগেন।