বছর ঘুরলেই একুশের বিধানসভা নির্বাচন। আর তার আগেই বাংলা জয়ে উঠে পড়ে লেগেছে বিজেপি। প্রতিমাসে একবার করে কেন্দ্রীয় শীর্ষ নের্তৃত্বের বাংলায় আসা যাওয়ার পিছনে একটাই কারণ লুকিয়ে আছে, তা হল ভোট। আর এবার সেই একুশের নির্বাচনকে পাখির চোখ করে  'জাতীয়তাবাদ' অভিযানের আওতায় স্থানীয় বাঙালি পরিবারগুলিতে সমর্থন অর্জনের জন্য মধ্যপ্রদেশ থেকে একটি জাতীয় প্রচার শুরু করেছে বিজেপি। এবার আরও একধাপ এগিয়ে মধ্য প্রদেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী নরোত্তম মিশ্র , নাড্ডা সফরে হামলা প্রসঙ্গ তুলে কীভাবে বাংলার শাসক দল ক্ষমতা চ্যুত করা যায় তার জন্য সবাইকে বার্তা দেন।

আরও পড়ুন, 'ফাড্ডা- গাড্ডা যে কেউ বাংলায়'-মমতা, 'মুখের ভাষাই মানসিকতার পরিচয় দেয়' -পাল্টা নাড্ডা

 

 

' দিদির সরকার পশ্চিমবঙ্গকে আইনহীন রাষ্ট্রে পরিণত করেছে'


পশ্চিমবঙ্গে বিজেপির সর্ব ভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডার  উপর হামলার একদিন পর মধ্য প্রদেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী নরোত্তম মিশ্র এবার মাঠে নামলেন। তিনি সুপারস্টার অমিতাভ বচ্চনের শাশুড়ি ইন্দিরা ভাদুড়ির সঙ্গে ভোপালে সাক্ষাত করেছেন। নরোত্তম মিশ্র বলেন যে, ' দিদির সরকার  গৌরবময় রাজ্য পশ্চিমবঙ্গকে আইনহীন রাষ্ট্রে পরিণত করেছে। বিজেপির সর্ব ভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা এবং  কৈলাশ বিজয়বর্গীয়ের উপর হামলা খুবই নিন্দনীয়' উল্লেখ করে বাংলায় অনাচার নিয়ে কথা তুলেছেন তিনি।

আরও পড়ুন, 'এই হিংসার জন্য রাজ্য সরকারকে জবাব দিতে হবে' নাড্ডার সফরে হামলার পরে বাংলায় আসবেন শাহ

 

 

'দিদির সরকারকে বাংলা থেকে সরিয়ে দেওয়ার জন্য আহ্বান জানাই'

 নরোত্তম মিশ্র আরও বলেন, 'ভোপাল সহ এমপির অনেক অংশে বাঙালি জনগোষ্ঠীর উল্লেখযোগ্য উপস্থিতি রয়েছে। অতীতে শরণার্থী সঙ্কটের সময়ে মধ্যপ্রদেশে প্রচুর পরিমাণে বাঙালি থাকার ব্যবস্থা করা হয়েছিল। এমনকি কোভিড -১৯ লকডাউন চলাকালীন বাংলার প্রচুর পরিযায়ী শ্রমিক মধ্যপ্রদেশে কর্মরত ছিলেন। বিশেষ পরিবহণ ব্যবস্থার মাধ্যমে তাদের নিজ রাজ্যে পাঠানো হয়েছিল'।  তিনি আরও বলেন, 'আমি মধ্যপ্রদেশের বাসিন্দা। দুর্ণীতিপরায়ন দিদির সরকারকে বাংলা থেকে সরিয়ে দেওয়ার জন্য সকল বাঙালিকে  আহ্বান জানাই।'