বিজেপির শীর্ষ নেতৃত্বের বৈঠকেও একাধিকবার উঠেছে নন্দীগ্রাম কেন্দ্রের কথা। এই কেন্দ্রে তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থী হতে চান বলে জানিয়েছেন দলের সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। অন্যদিকে এই কেন্দ্রেই লড়াই করতে চান সদ্যো তৃণমূল কংগ্রেস ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দেওয়া শুভেন্দু অধিকারী। সূত্রের খবর শুভেন্দু দলের শীর্ষ নেতৃত্বের কাছেও তাঁর ইচ্ছের কথা প্রকাশ করেছেন। নন্দীগ্রাম কেন্দ্র থেকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রায় ৫০ হাজার ভোটে পরাজিত করতে পারবেন বলেও আশ্বাস দিয়েছেন শুভেন্দু অধিকারী। ওই কেন্দ্র জয় হাসিল করার বিষয়ে তিনি রীতিমত আত্নবিশ্বাসী বলেও দলের শীর্ষ নেতৃত্বকে জানিয়েছেন।  অন্যদিকে এতদিন ধরে বিধানসভা নির্বাচনে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় লড়াই করতেন ভবানীপুর কেন্দ্রে। এদিন সেই কেন্দ্রটি নিয়েও আলোচনা হয়। কারণ এই কেন্দ্রের প্রার্থী হবেন বলেও জানিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিজেপির এক শীর্ষ নেতৃত্ব জানিয়েছেন পশ্চিমবঙ্গের ভোট লড়াইকে তাঁরা রীতিমত গুরুত্ব দিচ্ছেন। তাই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে হেভিওয়েট প্রার্থী তাঁদের পছন্দ। আর সেই কারণেই উঠে এসেছে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়র নাম। নন্দীগ্রামে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে লড়াই করতে হবে সেখানকার ভূমিপুত্র শুভেন্দু অধিকারীর সঙ্গে। অন্যদিকে ভাবনীপুরে তাঁকে লড়াই করতে হতে পারে কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর সঙ্গে।  

 এই গুরুত্বপূর্ণ দুটি আসনের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী, অমিত শাহ, ও জেপি নাড্ডার মত শীর্ষ স্থানীয় নেতৃত্ব। তবে শুধু এই দুটি কেন্দ্র নয় রাজ্যের আরও গুরুত্বপূর্ণ ১৫টি কেন্দ্র নিয়ে বৃহস্পতিবার  আলোচনা হয়েছে বিজেপির বৈঠকে। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বাংলার ভোট প্রচারে উস্কানিমূলক ভাষণ না দিতেই আবেদন জানিয়েছেন দলের নেতা কর্মী ও ভোট প্রার্থীদের কাছে। 

হিসেব বহির্ভূত টাকা, শেয়ার লেনদেনে হেরাফেরি- একগুচ্ছ অভিযোগ তাপসী অনুরাগদের বিরুদ্ধে ...

নজরে নন্দীগ্রাম, একসঙ্গে ২৯৪ আসনের প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করতে পারেন তৃণমূল নেত্রী মমতা ...

বিজেপি কেন্দ্রীয় নির্বাচনী কমিটি শুক্রবার পশ্চিমবঙ্গ ও অসমে বিধানসভা নির্বাচনের প্রথম দুটি পর্বের প্রার্থী তালিকা চূড়ান্ত করতে পারে। বৃহস্পতিবার থেকেই বিষয়টি নিয়ে বৈঠকে বসেছেন দলের শীর্ষ নেতৃত্ব। দলের প্রধান জেপি নাড্ডাসহ বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী, আমিত শাহ, রাজনাথ সিং-এর মত দলের শীর্ষ নেতৃত্ব। সূত্রের খবর কেন্দ্রীয় নির্বাচনী কমিটির বৈঠকে প্রথম ও দ্বিতীয় দফার ভোটের জন্য প্রার্থী তালিকা নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে। ৬০টি নাম নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে।