Asianet News BanglaAsianet News Bangla

কোটি টাকার লেনদেন সত্ত্বেও অনুব্রত-কন্যার বাড়িতে সময় মাত্র ১০ মিনিট, কেন চলে গেলেন সিবিআই কর্তারা?

সুকন্যার নামে বোলপুরে বিঘার পর বিঘা জমি, চালকল সহ একাধিক সম্পত্তি কেনা হয়েছে। অনুব্রতর কন্যা সুকন্যা পেশায় একজন স্কুল শিক্ষিকা। শুধুমাত্র একজন স্কুল শিক্ষি কা হয়ে তাঁর নামে এত সম্পত্তি কীভাবে হল, তা খতিয়ে দেখছেন তদন্তকারীরা।

CBI update on Anubrata Mondal s daughter Sukanya Mondal in West Bengal Cattle Smuggling Case ANBSS
Author
Kolkata, First Published Aug 17, 2022, 2:06 PM IST

পশ্চিমবঙ্গে গরু পাচার কাণ্ডে বীরভূমে তৃণমূলের জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডলের মেয়ে সুকন্যা মণ্ডলও এবার সিবিআই-এর নজরে। এক মহিলা আধিকারিকসহ সিবিআই গোয়েন্দারা অনুব্রতর বাড়িতে ঢোকেন আজ সকালে। কিন্তু মাত্র ১০ মিনিটের মধ্যেই এদিন বাড়ি থেকে বেরিয়ে যান তাঁরা। এত কম সময়ে কেন বেরিয়ে এলেন গোয়েন্দারা, তা নিয়ে উঠছে প্রশ্ন।

সিবিআই সূত্রে জানা গিয়েছে, তদন্তকারীদের হাতে এসেছে অনুব্রত মণ্ডলের নামে গঠিত এক নয়া সংস্থার রেকর্ড। ২০০৬ সালে তৈরি হওয়া এই সংস্থার নাম ‘নীড় ডেভেলপার প্রাইভেট লিমিটেড’। তাঁর বিভিন্ন সংস্থার খোঁজ করতে গিয়ে আগেই মিলেছিল ‘ANM অ্যাগ্রোকেম ফুড প্রাইভেট লিমিটেড’-এর। নীড় ডেভেলপারও নাকি সেই সংস্থার ঠিকানাতেই রেজিস্টার্ড রয়েছে। জানা গেছে, এই দুটো সংস্থারই ডিরেক্টর হলেন অনুব্রতর মেয়ে সুকন্যা মণ্ডল ও অনুব্রত-ঘনিষ্ঠ বিদ্যুৎবরণ গায়েন।

বোলপুরের অন্তর্গত কালিকাপুরের হারাধন মণ্ডল রোডের ঠিকানায় রেজিস্টার্ড নীর ডেভেলপারের শেয়ার ক্যাপিটাল ছিল প্রায় দেড় কোটি টাকা। অনুব্রত মণ্ডলের ‘ভোলে ব্যোম রাইস মিল’-এরও ঠিকানা এই হারাধন মণ্ডল রোডে। অর্থাৎ, এই একটিমাত্র ঠিকানা মোট তিনটি সংস্থার নামে রেজিস্টার্ড। অনুব্রতর ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে বিশেষ লেনদেনের খোঁজ না মিললেও এই সব কোম্পানিগুলিতে প্রচুর অর্থের লেনদেন হয়েছে। ঘটনার তদন্তে বুধবার সকালে বোলপুরে অনুব্রতের হিসাবরক্ষককে ডেকে পাঠায় সিবিআই।

উল্লেখ্য, গত সপ্তাহের বৃহস্পতিবার গরু পাচার মামলায় অনুব্রত মণ্ডলকে গ্রেফতার করা হয়েছে। সিবিআইয়ের দাবি, আর্থিক লেনদেনের বিভিন্ন নথিপত্র খতিয়ে দেখে উঠে এসেছে অনুব্রতর মেয়ে সুকন্যার নাম। গোয়েন্দাদের নজরে রয়েছে সুকন্যার ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট। এই পরিস্থিতিতে বীরভূমের তৃণমূল কংগ্রেসের জেলা সভাপতির বোলপুরের বাড়িতে গিয়ে তাঁর কন্যাকে জিজ্ঞাসাবাদ করতে পারেন কেন্দ্রীয় তদন্ত সংস্থার আধিকারিকরা। অন্যদিকে সূত্রের খবর, অনুব্রতের ব্যক্তিগত হিসাবরক্ষক মণীশ কোঠারির কাছ থেকে সুকন্যার সম্পত্তির হিসেব চাইতে পারে সিবিআই। সিবিআই-এর দাবি, সুকন্যার নামে বোলপুরে বিঘার পর বিঘা জমি, চালকলসহ একাধিক সম্পত্তি কেনা হয়েছে। অনুব্রতর কন্যা সুকন্যা পেশায় একজন স্কুল শিক্ষিকা। শুধুমাত্র একজন সরকারি স্কুল শিক্ষিকা হয়ে তাঁর নামে এত সম্পত্তি কীভাবে হল, তা খতিয়ে দেখছেন তদন্তকারীরা। শুধু অনুব্রতর কন্যা নয়, অনুব্রতর চার্টার্ড অ্যাকাউন্ট্যান্ট মণীশ কোঠারিকেও আজ জেরা করতে চলেছে সিবিআই। কিন্তু, অনুব্রতর বাড়ি থেকে এত কম সময়ে কেন বেরিয়ে এলেন গোয়েন্দারা, সুকন্যা মণ্ডল কি জেরার মুখোমুখি হতে চাননি, এ নিয়ে তৈরি হয়েছে ধোঁয়াশা।


আরও পড়ুন-
সাংবাদিকদের প্রশ্নের মুখে আজও মুখে কুলুপ অনুব্রতর, তদন্তে অসহযোগিতার অভিযোগ CBI-এর
“সবে তো মাত্র ২টো উইকেট পড়েছে”, রাজ্যে ফিরেই শাসকদলের দিকে উপহাসের তীর দিলীপের
'তৃণমূলের সমালোচকদের গায়ের চামড়া দিয়ে পায়ের জুতো তৈরি হবে', প্রকাশ্যে হুমকি সৌগত রায়-এর

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios