তৃণাঞ্জন চট্টোপাধ্যায়ঃ- কয়লাপাচারকাণ্ডে প্রথম গেফতারি সিআইডির। উল্লেখ্য, কয়লাপাচারকাণ্ডে মূল অভিযুক্ত লালা ওরফে অনুপ মাজি। আর সেই লালা ঘনিষ্ঠ রণধীর সিং নামের ওই ব্যবসায়ীকে অন্ডাল থেকে গ্রেফতার করেছে তদন্তকারী অফিসারেরা। 

আরও পড়ুন, 'আমি অনেক টাকার চাকরি ছেড়ে রাজনীতিতে এসেছি' আইকোরকাণ্ডে CBI নোটিশ পেতেই প্রতিক্রিয়া পার্থর 

 

 

৫ ফেব্রুয়ারি সিআইডির ডিআইজি অজয় ঠাকুরের নের্তৃত্বে একটি দল দুর্গাপুর আসানসোলের যে সমস্ত জায়গায় অবৈধভাবে কয়লা তোলা হচ্ছিল বলে অভিযোগ সেসব জায়গায় তদন্ত চালানো হয়। তখন অন্ডালের কাজোরা এলাকার লছিপুর, হরিশপুর, তালডাঙা, জেকে রোপওয়ে, বক্তারনগর, এলাকাগুলিতে অবৈঠ খাদানগুলি পরিদর্শন করেন সিআইডি-র গোয়েন্দারা। স্থানীয়দের সঙ্গে কথাও বলেন সিআইডির আধিকারিকরা। সিআইডি ডিআইজি জানিয়েছেন, একাধিকবার কয়লাপাচার ও চুরির অভিযোগ করেছিল ইসিএল। সংস্থার অভিযোগের ভিত্তিতেই অবৈধ কয়লা কারবারের বিষয়ে তদন্ত হচ্ছে। অভিযোগকারীদের সঙ্গে কথা বলা হবে। উল্লেখ্য, সিবিআইয়ের দাবি কয়লাকাণ্ডে ষড়যন্ত্রের মূলে রয়েছে  লালা ওরফে অনুপ মাজি। 

আরও পড়ুন, মমতার উপর 'হামলা' ইস্যুর রিপোর্টে সন্তুষ্ট নয় কমিশন, মুখ্যসচিবের কাছে ফের রিপোর্ট তলব 

 

 


প্রসঙ্গত, সম্প্রতি কয়লাকাণ্ডে  ৮  ব্যবসায়ীর বাড়িতে হানা দেয় ইডি। এর প্রত্যেকেই কলকাতার বাসিন্দা। ওই ব্যবসায়ীদের বাড়ি এবং অফিসে তল্লাশি চালিয়ে পাওয়া গিয়েছে একাধিক গুরুত্বপূর্ণ তথ্য। কয়লা কাণ্ডে  দক্ষিণ কলকাতার বাঁশদ্রোণীর ব্যবসায়ী রণধীর বার্নওয়ালের বাড়িতে ও অফিসে দিনভর তল্লাশি চালায় কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা। তাঁর বিরুদ্ধেও বিপুল টাকা বাজারে খাটানোর অভিযোগ আনে সিবিআই।