আর কয়েক জনের মতই, তিনি নিজেও লাইনে দাঁড়ালেন মুখ্যমন্ত্রী। নিজের স্বাস্থ্যসাথীর কার্ড সংগ্রহ করতে লাইনে দাঁড়ালেন তিনি। তিন জন মহিলার পিছনে দাঁড়ান তিনি। লাইন তাঁর কাছে যেতেই নিজের যাবতীয় তথ্য দেন সরকারি কর্মীদের। এরপরই, বেশ কিছুক্ষণ পরই নিজের স্বাস্থ্যসাথী কার্ড পেলেন মুখ্যমন্ত্রী।

আরও পড়ুন-ফের ঠুঠো জগন্নাথ পুলিশ, হরিশ্চন্দ্রপুরে ল্যান্ড মাফিয়াদের মারে জীবনসঙ্কটে ক্যানসার আক্রান্ত

মঙ্গলবার সকাল থেকে হরিশ্চ মুখার্জি রোডে দুয়ারে সরকারের ক্যাম্প চলছে। সরকারি প্রকল্পের সহায়তা পেতে সেই ক্যাম্পে ভিড় করেছিলেন অনেকেই। এদিন তাঁদের সঙ্গে সামিল হন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্য়ায়। কলকাতার ৭৩ নম্বর ওয়ার্ডে জয়হিন্দ ভবনের দোতলায় শিবিরে গিয়ে নিজের যাবতীয় নথিপত্র দিয়ে স্বাস্থ্যসাথীর কার্ড সংগ্রহ করেন মুখ্যমন্ত্রী। তাঁর সঙ্গে ছিলেন মুখ্যসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্য়ায়। কলকাতার পুলিশ কমিশনার অনূজ শর্মা, পুরমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম।

আরও পড়ুন-ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রীর কুর্সি ছাড়লেন লক্ষ্মীরতন শুক্লা, কী কারনে ইস্তফা দিলেন প্রাক্তন ক্রিকেটার

সামাজিক দবরত্ব বিধি মেনে তিনজন মহিলার পিছনে দাঁড়িয়ে লাইন দেন মুখ্যমন্ত্রী। কিছুক্ষণ লাইনে দাঁড়ানোর পরই সরকারি কর্মীদের যাবতীয় তথ্য দেন। তারপর, বায়োমেট্রিকে আঙুল ছাপ দেন। পাশাপাশি ছবিও তুলেছেন মমতা। এরপরই নিজের স্বাস্থ্যসাথী কার্ড সংগ্রহ করেন মুখ্যমন্ত্রী। সেখান থেকে নবান্ন যাওয়ার সময় গাড়িতে ওঠা আগে তিনি বলেন, ''আমি একজন সাধারণ মানুষ, তাই সাধারণ মানুষের মতই কার্ড নিলাম''।