শুভেন্দুর দলবদলের পর একের পর এক কাণ্ড ঘটেছে অধিকারী পরিবারে। কাঁথি পুরসভার প্রশাসক পদ থেকে রাতারাতি অপসারিত হয়েছিলেন শুভেন্দুর সৌমেন্দু। তা নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীকে চিঠি লিখে ক্ষোভের কথা জানিয়েছিলেন মেজো ভাই দিব্যেন্দু। পূর্ব মেদিনীপুর জেলা সভাপতির পদ থেকে অপসারণ করা হয় বর্ষীয়ান সাংসদ শিশির অধিকারীকেও। এই অবস্থায় অধিকারী পরিবার থেকে আরও একটি বোমা ফাটার সম্ভাবনা।

আরও পড়ুন-বাংলা দখলে বিজেপি করবে ৫টি মেগা 'রথ যাত্রা', কবে কোথায় জানুন সময়-সূচি

বর্তমানে তমলুক লোকসভা কেন্দ্রের সাংলদ দিব্যেন্দু অধিকারী। দলবদলের আবহে তিনিও তৃণমূলের টিকিটে জেতা সাংসদ পদ থেকে ইস্তফা দিতে পারেন বলে জল্পনা শুরু হয়েছে রাজ্য রাজনীতিতে। কেননা, আগামী ১০ ফেব্রুয়ারি লোকসভার স্পিকার ওম বিড়লার সঙ্গে দেখা করতে পারেন দিব্যেন্দু অধিকারী। দিল্লিতে গিয়ে স্পিকারের সঙ্গে সাক্ষাৎ নিয়ে পদত্যাগের ইঙ্গিত মিলছে। ওই দিন বিকেল তিনটে নাগাদ সাংসদ পদ থেকে ইস্তফা দিতে পারেন বলে ঘনিষ্ঠমহল সূত্রে খবর।

আরও পড়ুন-সেলুলয়েডে নয়, সোশ্যাল ট্যাবু ভেঙে মন্ত্র পড়ে কনের বিয়ে দিলেন মহিলা পুরোহিত

আগামী ৭ ফেব্রুয়ারি হলদিয়ায় ভারত পেট্রোলিয়ামের নতুন প্রকল্পের উদ্বোধনে আসছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। সেই অনুষ্ঠানে প্রোটোকল মেনে উপস্থিত থাকতে পারেন তমলুকের সাংসদ দিব্যেন্দু অধিকারী। সেই অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত রয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্য়ায়ও।  হলদিয়ার অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকা নিয়ে তাঁকে হুমকি দেওয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ করেন তিনি। তবে তিনি বিজেপিতে যোগদান করছেন কিনা। তা এখনও তিনি খোলসা করেননি।