রাজ্য সরকারের সল্প খরচে ক্যান্টিন চালু নিয়ে আক্রমণ দিলীপের। উল্লেখ্য, মায়ের রান্নাঘর কর্মসূচি নিয়ে নাম না করে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্য়োপাধ্য়ায়কে নিশানা করলেন এবার বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ।

আরও পড়ুন, অপেক্ষা শেষ, আগামী সপ্তাহ থেকেই 'যাত্রী' নিয়ে মেট্রো ছুটবে দক্ষিণেশ্বর  

 

 

সোমবার রাজ্যকে কটাক্ষ করে বলেন,' একটা সময় লঙ্গর চালানো হত। এখন মানুষের কাছে খাওয়ার টাকা নেই। এই কর্মসূচির মাধ্যমে দিদিমণি প্রমাণ করে দিলেন তাঁর সরকার পুরোপুরি ব্যর্থ হয়েছে। মানুষকে ভিখারি করে রেখেছে দিদিমণির সরকার। প্রসঙ্গত, ভোটের আগে ৫ টাকায় পেট ভরে ডিম -ভাত খাওয়ানোর কর্মসূচি এনেছে মমতার সরকার। রাজ্য সরকারের উদ্যোগে কলকাতা পুরসভায় চালু এই কর্মসূচির নাম দেওয়া হয়েছে মায়ের রান্নাঘর। প্রতিদিন দুপুর ১টা থেকে ২ পর্যন্ত দেওয়া হবে। নবান্ন সূত্রের খবর, ৫ টাকা দিয়ে রাজ্য়ের সাধারণ মানুষ রাজ্য সরকার এবং পুরসভার মায়ের রান্নাঘর থেকে খাবার সংগ্রহ করতে পারবেন। মেনু থাকবে ২০০ গ্রাম চালের ভাত, সঙ্গে থাকবে ডাল, তরকারি এবং ডিম। পুরসভার ১৪৪ টি ওয়ার্ডেই এই সুবিধা পাওয়া যাবে।  উল্লেখ্য, সোমবার নবান্ন থেকে একাধিক প্রকল্পের উদ্ধোধন করেন মুখ্য়মন্ত্রী মমতা বন্দ্য়োপাধ্য়ায়। ওয়েবেল মোড়ে ৪ টি আইটি পার্ক, গুরুচাঁদ ঠাকুরের মূর্তি উন্মোচন, চিত্তরঞ্জন সেবা সদন হাসপাতেল মাতৃ মা ভবনের উদ্ধোধনের পর এদিন মায়ের রান্না ঘর প্রকল্পের উদ্ধোধন করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্য়োপাধ্য়ায়।

আরও পড়ুন, 'চোর বিধায়ককে আর চাই না', ফের পোস্টার পড়ল জিতেন্দ্র তেওয়ারীর বিরুদ্ধে দুর্গাপুরে 

 

এদিকে দোরগড়ায় বিধানসভা ভোট। শাসক দলের সঙ্গে ময়দানে বিরোধী দল। তবে মূলত তৃণমূল এবং বিজেপির মধ্য়েই প্রকল্প থেকে কর্মসূচি সবেতেই লড়াই শুরু। তা সেই স্বাস্থ্যখাতে বিজেপির আয়ুশমান ভারত-তৃণমূলের স্বাস্থ্য সাথী, সংষ্কৃতিতে বিজেপির রথযাত্রা-তৃণমূল সরকারের দিদির দূত। তবে এখনও মায়ের রান্নঘরের কর্মসূচি নেয়নি বিজেপি। এমন পরিস্থিতিতে ময়দানে নির্বাচনের জন্য অস্তিত্বের লড়াইয়ে টিকে থাকবে কিনা মা-মাটি-মানুষের সরকার, নাকি বাংলায় শুধুই পদ্ম ফুটবে, এখন শুধু তা সময়েরই অপেক্ষা।