গত ডিসেম্বর মাসে বিজেপিতে যোগদানের জল্পনা তুঙ্গে উঠেছিল। পাণ্ডবেশ্বরের বিধায়ক জিতেন্দ্র তিওয়ারি দলের প্রতি ক্ষোভ প্রকাশ করেন। আসানসোলের পুর-প্রশাসক পদ থেকেও ইস্তফা দিয়েছিলেন। তারপর দলের একাধিক গুরুত্বপূর্ণ পদ থেকে ইস্তফা দিয়েছিলেন জিতেন্দ্র।  পশ্চিম বর্ধমান জেলা তৃণমূলের সভাপতিও ছিলেন জিতেন্দ্র তিওয়ারি। পুর ও নগরোন্নয়নমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিমের বিরুদ্ধে উন্নয়নের টাকা না পাওয়ার অভিযোগ তুলে চিঠিও দিয়েছিলেন তিনি। সেই সময় পাণ্ডবেশ্বরের বিধায়ক জিতেন্দ্র তিওয়ারিকে কম জলঘোলা হয়নি রাজ্য রাজনীতিতে। বিগত এক মাসের বেশি সময় ধরে সেই জল্পনা থেমে থাকলেও, নতুন করে শুরু হয়েছে দল বদলের জল্পনা। 

আরও পড়ুন-'রথ তৈরি করে যাত্রা করছে BJP', পৌরাণিক প্রসঙ্গ তুলে তোপ মমতার

সূত্রের খবর, আগামী ১৪ ফেব্রুয়ারি দিল্লি যাচ্ছেন পাণ্ডবেশ্বরের তৃণমূল বিধায়ক। একঝাঁক তৃণমূল নেতাকে সঙ্গে নিয়ে বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতাদের সঙ্গে দেখা করার সম্ভাবনা। এই খবর চাউর হতেই, জল্পনা শুরু হয়েছে রাজ্য রাজনীতিতে। তাহলে জিতেন্দ্র তিওয়ারির বিজেপিতে যাওয়ার রাস্তা এখন পরিষ্কার? কেননা, গতবার যখন বিজেপিতে যোগদানের চেষ্টা করেছিলেন, তখন তাঁকে বাধা দিয়েছিলেন আসানসোলের বিজেপি সাংসদ জিতেন্দ্র তিওয়ারি সহ রাজু বন্দ্যোপাধ্য়ায়, অগ্নিমিত্রা পাল সহ অন্যান্যরা। জিতেন্দ্রর বিজেপিতে যোগদানের সমস্ত রাস্তা বন্ধ হওয়ায় তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্য়ায়কে চিঠি দিয়ে ভুল স্বীকার করেছিলেন। তারপরেও, তৃণমূলের বিভিন্ন অনুষ্ঠানে ডাক পড়েনি জিতেন্দ্রর।

আরও পড়ুন-মমতার গড়ে বিজেপির হাতিয়ার পঞ্জাবি আবেগ, ভবানীপুরে দালের মেহেদির সঙ্গে আড্ডায় কৈলাস

এই পরিস্থিতিতে নির্বাচনের প্রাক্কালে জিতেন্দ্র তিওয়ারির রাজনৈতিক অবস্থান কী হবে? প্রশ্ন উঠতে শুরু করে তিনি আদৌ তৃণমূলে?নাকি তৃণমূলে থেকে বিজেপির হয়ে কাজ করবেন? নাকি এই সপ্তাহেই জিতেন্দ্র তিওয়ারি দল বদলের জল্পনা স্পষ্ট হয়ে যাবে? কেননা, একুশের নির্বাচনে তৃণমূল দল থেকে টিকিট পাবেন কিনা, তা নিয়ে দলের মধ্যেই বিভ্রান্তি রয়েছে। পাশাপাশি, জিতেন্দ্রর সঙ্গে দলছাড়া দুদিন আগেই বাবুল সুপ্রিয়র সঙ্গে কথা বলেছেন। তাহলে কি দিল্লি গিয়ে বিজেপিতে যোগদান করবে জিতেন্দ্র তিওয়ারি? রাজ্য রাজনীতিতে জল্পনা তুঙ্গে।