নন্দীগ্রাম বিধানসভা ক্ষেত্রটি নন্দীগ্রাম ১ এবং নন্দীগ্রাম ২ নামে দুটি ব্লকের সমন্বয়ে গঠিত। ১৯৫১ সাল প্রথম নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছিল স্বাধীন ভারতে। সেই সময় থেকেই নন্দীগ্রাম বিধানসভার অস্তিত্ব রয়েছে। তবে, প্রথম দিকে এই বিধানসভায় নন্দীগ্রাম দক্ষিণ এবং নন্দীগ্রাম উত্তর নামে দুটি আসন ছিল। ১৯৬৭ সালে নন্দীগ্রাম দক্ষিণ ও নন্দীগ্রাম উত্তর মিলিয়ে একটি বিধানসভার জন্ম হয়।  

আরও পড়ুন- 'এটাতো ট্রেলর, সিনেমা এখনও বাকি', ফের 'পিসি-ভাইপো'কে খোঁচা শুভেন্দুর-রাজীবের

২০১৯ লোকসভা নির্বাচনের নিরিখে এই বিধানসভার ভোটার সংখ্যা ২,৪৬,৪৩৪। ২০২১ পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচন-কে সামনে রেখে নতুন করে সংশোধিত হয়েছে ভোটার তালিকা। সেই সংশোধিত তালিকা এখনও প্রকাশ পায়নি। নতুন তালিকা অনুযায়ী কিছু ভোটার সংখ্যা কমতে বা বাড়তে পারে।

 

২০১৬ সালের বিধানসভা নির্বাচনে নন্দীগ্রাম বিধানসভায় জয়ী হয়েছিলেন শুভেন্দু অধিকারী। তৃণমূল কংগ্রেসের ঘাসফুল চিহ্নে দাঁড়ানো শুভেন্দু- রেকর্ড ভোটে জয় পেয়েছিলেন। তাঁর নিকটতম প্রার্থী সিপিআই-এর আব্দুল কবির শেখের থেকে তাঁর প্রাপ্ত ভোটের ব্যবধান ছিল ৮১২৩০। ২০১৯ লোকসভা নির্বাচনে নন্দীগ্রামের লোকসভা আসন তমলুক থেকেও জয়ী হয়েছিল তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থী। সেই ভোটে শুভেন্দু-র ভাই দিব্যেন্দু অধিকারী নন্দীগ্রামের লোকসভা ক্ষেত্র তমলুক থেকে ১৯০১৬৫ ভোটে জয়ী হয়েছিলেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী হিসাবে উঠে এসেছিলেন বিজেপি প্রার্থী সিদ্ধার্থশঙ্কর নস্কর।

 

২০১৯ লোকসভা নির্বাচনে নন্দীগ্রামে তৃণমূল কংগ্রেসের প্রাপ্ত ভোট ছিল ২,৪৬,৪৩৪। দ্বিতীয় স্থানে থাকা বিজেপি পেয়েছিল ৬২,২৬৮। ২০১৯-এর লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূল কংগ্রেস নন্দীগ্রাম বিধানসভায় পেয়েছিল ৬৩.১৪% মানুষের সমর্থন। বিজেপি পেয়েছিল ৩০.০৯% ভোট। 

 

নন্দীগ্রাম বিধানসভা আসনে সবচেয়ে বেশিবার জয়ী হয়েছে বামেরা, ৯ বার সিপিআই এবং ১ বার সিপিএম। কংগ্রেস জয়ী হয়েছে ৬ বার। জনতা পার্টি একবার জয়ী হয়েছিল, সেটা ছিল ১৯৭৭ সাল। ২০০৯ সালের উপনির্বাচন থেকে এই আসনে জয়ী হয়ে আসছে তৃণমূল কংগ্রেস। ১৯৭৭ সাল থেকে জয়ের হিসাব ধরলে এই বিধানসভা ক্ষেত্রে তৃণমূল জয়ী হয়েছে ৩বার এবং বামেরা জয়ী হয়েছে ৫ বার।

 

২০১৬-র বিধানসভা নির্বাচনের নিরিখে নন্দীগ্রামের ফলাফল এরকম- তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থী শুভেন্দু অধিকারী পেয়েছিলেন ১,৩৪,৬২৩টি ভোটে। ৮৭% মানুষের সমর্থন পেয়েছিলেন তিনি। জয়ের ব্যবধান ছিল ৮১,২৩০ ভোটে। শুভেন্দুর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী সিপিআই-এর আব্দুল কবির শেখ পেয়েছিলেন ৫৩,৩৯৩টি ভোট। বিজেপি প্রার্থী বিজন কুমার দাস পেয়েছিলেন ১০,৭১৩টি ভোট।