বারুইপুরে সভায় যাওয়ার পথে এদিন শুভেন্দুকে কালো পতাকা দেখানো হয়েছে। তবে এদিন 'পিসি এবং ভাইপো'কে ফের বারুইপুরের সভা থেকে আক্রমণ করেন শিশির পুত্র। এবং বরাবরের মতোই দল ছাড়ার পর বিজেপি সভাতে দ্বিতীয় বার এসে তৃণমূল সরকারের যাবতীয় ভূল গুলি চোখ আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দেন রাজীব।

আরও পড়ুন, আজ থেকে ডুয়ার্স সফর মমতার, মিলবে কি আদিবাসী ভোট

 

 


শুভেন্দু অধিকারী এদিন ফের বলেন, 'তোলাবাজ ভাইপো, এটাতো ট্রেলর। সিনেমা এখনও বাকি। এখান থেকেই বিজেপি সব থেকে ভাল রেজাল্ট করবে। মোদীজি বিনা পয়সায় শ্রমিক স্পেশাল দিয়েছে। এরপর তিনি বলেন বুদ্ধি এত ভোঁতা যে বিহার থেকে বুদ্ধি ধার করার লোক এনেছে। তৃণমূল মানেই এনামূল, গরুচোর। আমার নামে বড় বড় কথা বলছে।' এরপর তিনি প্রশ্ন তোলেন 'কয়লার টাকা কোথায় যায়,  উত্তর দিয়ে নিজেই বলেন, যায় ব্যাঙ্কে-ব্যাঙ্কে।' 

আরও পড়ুন, অর্থমন্ত্রী মুখে ঘোষণা না করলেও বাংলা পেল উপহার, ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রোর বরাদ্দ বাড়ল ২৯ শতাংশ  

 

 

অপরদিকে রাজীব বন্দ্য়োপাধ্যায়ও এদিন কম যাননি। তিনি বর্তমান শাসক দলের অসংখ্য ভূল চোখে আঙুল দিয়ে ধরিয়ে দেন। এই কথায় উঠে আসে, রাজ্যের ব্যর্থতা, স্থায়ী চাকরি নেই, তাই ১০০ দিনের কাজ করতে হয়। এমন বাংলা গড়তে হবে যেখানে সমস্ত পরিবারের হাতে টাকা থাকবে। এরপর সোজা মমতাকে উদ্দেশ্য় করে বলেন, আপনি কাজ দিতে পারছেন না, তাই যুব সমাজ বাইরে চলে যাচ্ছে। আপনি সাম্প্রদায়িকতার চেয়েও বেশি বড় আগুন জ্বালাচ্ছেন। তাই এবার আমাদের একাবার ভরসা করুন বলে বারুইবাসীর উদ্দেশ্যে চলুন পাল্টাই এর ডাক দেন রাজীব।