শিবরাত্রিতে নন্দীগ্রাম থেকে মনোনয়ন জমা মমতার। তৃণমূল সূত্রে খবর, নন্দীগ্রাম থেকেই বিধানসভা নির্বাচনে প্রার্থী হচ্ছেন মমতা বন্দ্য়োপাধ্য়ায়। মঙ্গলবার জানা গিয়েছে, মমতার মনোনয়ন পত্র জমার দিনও। এদি্কে  নন্দীগ্রামে তৃণমূল সুপ্রিমোকে ৫০ হাজার ভোটে হারানোর  চ্যালেঞ্জ ছোঁড়েন শুভেন্দু।

আরও পড়ুন, 'তোমরা নও, নেতাজির উত্তরাধিকারী আমরা সবাই', ব্রিগেডে পরাক্রম দিবস ইস্যুতে মোদীকে নিশানা বাঘেলের 

 

 

'নন্দীগ্রাম বড় বোন এবং ভবানীপুর ছোট বোন'-মমতা


১১ মার্চ মহাশিবরাত্রিতে তমলুকে মনোনয়ন পেশ করবেন তিনি। তৃণমূলের প্রার্থীতালিকা প্রকাশিত না হলেও নন্দীগ্রাম থেকে মমতার প্রার্থীপদ প্রায় নিশ্চিত। প্রসঙ্গত ১০ জানুয়ারি নন্দীগ্রামের সভা মঞ্চ থেকে মমতা বলেন, 'কেমন হত যদি আমি নন্দীগ্রাম থেকে দাঁড়াই' বলেই তিনি নিশ্চিত করেন যে একুশের নির্বাচনে নন্দীগ্রাম থেকে তিনি প্রার্থী হবেন। এও বলেন 'নন্দীগ্রাম বড় বোন এবং ভবানীপুর ছোট বোন।' ওদিকে তৃণমূল থেকে সদ্য বিজেপি যোগ দিয়েই মমতাকে তোপ দেগে শুভেন্দু অধিকারী বলেন, দাঁড়াতে হবে শুধু নন্দীগ্রাম থেকেই। অন্য কোনও আসন থেকে দাঁড়ানো চলবে না। নন্দীগ্রামে তৃণমূল সুপ্রিমোকে ৫০ হাজার ভোটে হারানোর  চ্যালেঞ্জ ছোঁড়েন শুভেন্দু।

আরও দেখুন, Election Live Update- শিবরাত্রিতে নন্দীগ্রাম থেকে মনোনয়ন পেশ মমতার, ওদিকে BJP যোগের জল্পনায় জল ঢাললে. 

 

 

 নন্দীগ্রামের সঙ্গে ভবানীপুরেও কি দাঁড়াবেন মমতা

তবে অপরদিকে প্রশ্ন উঠেছে নন্দীগ্রামের সঙ্গে ভবানীপুরেও কি দাঁড়াবেন মমতা। তবে এনিয়ে হুঁশিয়ারি দেন নন্দীগ্রামের প্রাক্তন বিধায়ক তথা বিজেপি নেতা শুভেন্দু অধিকারী। তিনি বলেছেন, 'একটাই কেন্দ্র থেকে দাঁড়াতে হবে। দুটি জায়গা থেকে দাঁড়াতে পারবেন না।' উল্লেখ্য, পশ্চিমবঙ্গে ৮ দফায় ভোটের দিন ঘোষণা করেছে কমিশন। ভোটের নির্ঘন্ট অনুযায়ী ১ এপ্রিম ভোট নন্দীগ্রামে এবং ভবানীপুরে ২৬ এপ্রিল। তবে ভবানীপুরে কে, এর উত্তর প্রকাশ পাবে তৃণমূলের প্রার্থীতালিকা প্রকাশ পেলেই।