২৩ জানুয়ারি খাস কলকাতায় কেন্দ্রীয় সরকারের অনুষ্ঠানে মোদীর সঙ্গে যোগ দিয়েছিলেন মমতা। নেতাজী সুভাষ চন্দ্রবসুর জন্মদিনে একসঙ্গে দুইজনকে পাশাপাশি দেখা গিয়েছিল। কিন্তু মুখ্যমন্ত্রীর বক্তব্য শুরু আগে 'জয় শ্রীরাম' স্লোগান দেওয়া হয়। সরকারি অনুষ্ঠানে এই স্লোগানের প্রতিবাদ জানিয়ে তাঁর বক্তব্য বয়কট করেন মুখ্যমন্ত্রী।

আরও পড়ুন-মোদী সফরের দিনেই BJP-র প্রস্তুতি সভায় হামলা, আহত ৫-আশঙ্কা জনক ২, কাঠগড়ায় তৃণমূল


 
তারপর, রবিবার ফের বাংলা সফরে প্রধানমন্ত্রী। হলদিয়া পেট্রো ক্যামিক্যালের নতুন প্রকল্পের শিলান্যাস করবেন তিনি। কেন্দ্রীয় সরকারের অনুষ্ঠানে মমতাকে ফের আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। কিন্তু মোদীর এবারের অনুষ্ঠানে মমতা থাকবেন বলেই নবান্ন সূত্রে জানা গিয়েছে। হলদিয়ায় ভারত পেট্রোলিয়ামের একাধিক প্রকল্পের উদ্বোধন ও শিলান্যাস করবেন মুখ্যমন্ত্রী। যার জন্য মোট ব্যায় বরাদ্দ প্রায় ৪ হাজার কোটি টাকা। সেই অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্য়ায়কে। কিন্তু সেখানে তিনি যে উপস্থিত থাকবেন না। তা জানিয়ে দেওয়া হয় নবান্নের তরফে।

আরও পড়ুন-মোদীর জন্য 'মাছ-আদিবাসীদের নৃত্য' আঁকা পাঞ্জাবি-শাল উপহার, তৈরি করলেন বাংলার পট শিল্পীরা

নেতাজীর ১২৫ তম জন্মবার্ষিকীতে শেষবার পাশাপাশি দেখা গিয়েছিল মোদী-মমতাকে। কিন্তু সেখানে 'জয় শ্রীরাম' স্লোগান বিতর্কের জেরে তাঁর ভাষণ বয়কট করেন মমতা। এই নিয়ে তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেন মুখ্যমন্ত্রী। তবে ভাষণ বয়কট করলেও, মোদী-মমতাকে পাশাপাশি দেখা গিয়েছিল। সেই বিতর্কের রেষ এখনও কাটেনি। এর মধ্য়েই হলদিয়ায় প্রধানমন্ত্রীর সভায় মমতার অনুপস্থিতিতি ঘিরে রাজ্য রাজনীতিতে জোর জল্পনা শুরু হয়েছে।