'সেই লোকটার নাম নিলে ও সে স্ট্যান্ডার্ডে উঠে যাবে', কোকেনকাণ্ডে আদলতের পথে বিস্ফোরক পামেলা গোস্মামী।  উল্লেখ্য সোমবার সকালেই কোকেন কাণ্ডে তদন্তকারীদের জালে আরও একজন গ্রেফতার হয়েছে। যে কিনা গোটা ঘটনায় যুক্ত ছিল। ঘটনাস্থল থেকে পালাতে সাহায্য করেছিল। এদিকে সুরজ কুমার নামের ওই ধৃত ব্যক্তিকে আদালতে তোলার পাশাপাশি সোমবার রাকেশ সিংকেও আদালতে নিয়ে হয়। এদিন আদালতে যাওয়ার পথে রাকেশের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দেন পামেলা।

আরও পড়ুন, কয়লাকাণ্ডে রেলের ৩ অফিসারকে নোটিস পাঠাল CBI, উঠে এল 'লালা' সম্পর্কিত নয়া তথ্য 

 

 


পামেলাকে আজ তৃতীয় বার আলিপুর কোর্টে আনা হয়েছে। এবং পামেলাকে যখন লকআপে ঢোকানো হচ্ছিল সেই সময় তিনি বললেন,'৭০ থেকে ৭৫টা কেস যার নামে রয়েছে তাঁর থেকে আমরা এর থেকে বেশী আর কী আশা করব। তার প্রতিচ্ছবি আজ বাংলার মানুষের কাছে যথেষ্ট স্পষ্ট।  সেই লোকটার নাম নেব না। সেই লোকটার নাম নিলে ও সে স্ট্যান্ডার্ডে উঠে যাবে। রাকেশ সিং এটা করিয়েছে। তিনি এদিন আবারও বলেন,' আমাকে ফাঁসানো হয়েছে। এর বিচার হোক।' পাশাপাশি দাবি করেন, 'ক্রিমিনালদের নিরাপত্তা এক্ষুনি প্রত্যাহার করা হোক।'

আরও পড়ুন, রবিবার বাংলার ময়দানে মুখোমুখি ২, মোদীর ব্রিগেডের দিনেই শিলিগুড়িতে মহামিছিলে মমতা  

 

 

অপরদিকে, গত সোমবার পুলিশের গাড়ি থেকে নামাতেই ওপাশে দাঁড়িয়ে বিজেপির কর্মী সমর্থকরা দলীয় পতাকা হাতে নিয়ে স্লোগান দিতে শুরু করে। তার মধ্যে  টানাহেঁচড়া করে পুলিশ রাকেশকে ভিতরে ঢুকিয়ে কলাপসিবল গেট দিয়ে দেয়। কিন্তু তখনও কিছু বলার অপেক্ষায় রাকেশও। শেষ অবধি ক্ষণিকের সুযোগে বলে ওঠে,' আমি সৎ আছি। আমকে কোনও ভাবে ফাঁসানো যাবেনা এবং আজকে মারা হয়েছে তার এমসি আছে। এইটা একটা খুব বড় ষড়যন্ত্র। মুরলীধর শর্মা এবং অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের ষড়যন্ত্র মানুষের সামনে খুব তাড়াতাড়ি এটা প্রকাশ হবে।'